kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৯ নভেম্বর ২০২২ । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পাখি

সাতছড়ির মোহনীয় ছোট হরিয়াল

শাহ ফখরুজ্জামান, হবিগঞ্জ   

৭ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাতছড়ির মোহনীয় ছোট হরিয়াল

পাখা মেলে আছে অপরূপ সুন্দর ছোট হরিয়াল। ছবি : সাইফুল্লা আল আমিন সুমন

বসে থাকলে তেমন নজর কাড়বে না, কিন্তু পাখা মেললেই অপরূপ সুন্দর। ছোট হরিয়াল দল বেঁধে চলাফেরা করে। কড়া রোদ ও বৃষ্টিতে এরা গাছের আড়ালে থাকে। লাজুক পাখি হিসেবে পরিচিত ছোট হরিয়ালের দেখা পাওয়া কিছুটা কঠিন।

বিজ্ঞাপন

ভোরবেলায়ই এরা খাবারের সন্ধানে বেরিয়ে যায়।

বৃহত্তর সিলেট ও চট্টগ্রাম অঞ্চলের চিরহরিৎ বনাঞ্চল আর সুন্দরবন এ দেশে ছোট হরিয়ালের গুরুত্বপূর্ণ বিচরণভূমি।

একসময় এই পাখি অনেক দেখা গেলেও আবাসন ও খাদ্যসংকটে এখন কমই চোখে পড়ে। বাংলাদেশে এই পাখি আইসিইউএনের লাল তালিকাভুক্ত।

ছোট হরিয়াল পাখির আরেক নাম সবুজ পায়রা। আকারে কিছুটা পায়রার মতো বলেই এ নাম। ইংরেজি নাম পম্পাডুর গ্রিন পিজিয়ন। বৈজ্ঞানিক নাম ঞত্বত্ড়হ ঢ়ড়সঢ়ধফড়ত্ধ। এদের প্রধান ও পছন্দের খাবার ডুমুর ও বট ফল। তবে অন্য ছোট ফলও খায়। ডুমুর বা বট ফল পাকলে হরিয়ালরা ঝাঁক বেঁধে খেতে আসে। কোনো রকম বাধা বা উৎপাতের শিকার না হলে এরা বারবার একই গাছে ফল খেতে আসে।

ছোট হরিয়ালের দৈর্ঘ্য ২৫ থেকে ২৮ সেন্টিমিটার। স্ত্রী ও পুরুষ পাখির চেহারা ভিন্ন। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ পাখির কপাল ও মাথার চূড়ার অংশ ধূসরাভ। পিঠ ও ডানা গাঢ় নীল। কাঁধের রং উজ্জ্বল মেরুন। মাথা সবুজ থেকে সবুজ-হলুদ এবং শরীরের নিচের অংশ সবুজ। গ্রিন পিজিয়ন আছে কয়েকটি প্রজাতির। একটি প্রজাতির পুরুষদের বুকে ফ্যাকাসে কমলা রঙের ছোপ থাকে। আরেকটির আবার আছে হলদে পা। ছোট হরিয়াল বাসা বাঁধে এবং একবারে দুটি সাদা ডিম পাড়ে। প্রজনন ঋতুতে এরা সুরেলা কণ্ঠে গান গায়। বাংলাদেশ ছাড়াও উত্তর-পূর্ব ভারত, শ্রীলঙ্কা, পূর্ব ফিলিপাইন ও আন্দামান দ্বীপপুঞ্জে এদের বসবাস রয়েছে।

নিয়মিত পাখির ছবি তোলেন এমন আলোকচিত্রীরা বলেন, আরো কিছু পাখির মতোই ছোট হরিয়ালের ডানা মেলার মুহূর্তের সুন্দর ছবি তোলার সুযোগ কমই পাওয়া যায়। হবিগঞ্জের আলোকচিত্রী সাইফুল্লা আল আমিন সুমন সম্প্রতি হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে উড়ন্ত ছোট হরিয়ালের ছবি তুলেছেন। সাতছড়ি আকারের বিচারে জীববৈচিত্র্যের এক অনন্য আধার। নিতান্ত এ ক্ষুদ্র বনে স্থানীয় ও পরিযায়ী মিলিয়ে বহু প্রজাতির পাখি ছাড়াও কয়েকটি বিরল প্রাণীর দেখা মেলে।

সাইফুল্লা আল আমিন সম্প্রতি এক ভোরবেলা আরো কয়েকজনকে নিয়ে সাতছড়ি বনে গিয়েছিলেন। ওয়াচ টাওয়ারে ক্যামেরা তাক করে অনেকক্ষণ বসে থাকার পর দূরের একটি গাছে সুন্দর কিছু পাখি বসে থাকতে দেখেন তিনি। অনেকখানি জুম করার পর ক্লিক করে দেখা যায়, পাখিটি ছোট হরিয়াল। দলের সবাই সুন্দর একটি ছবির তৃপ্তি নিয়ে ঘরে ফেরেন।

 

 



সাতদিনের সেরা