kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

গাজীপুরের শ্রীপুর

কাঁচাবাজার উন্নয়নের নামে চেয়ারম্যানের নদ দখল

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর   

৬ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাঁচাবাজার উন্নয়নের নামে চেয়ারম্যানের নদ দখল

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের পেছনে নদের জমি দখল করে নির্মাণ করা হচ্ছে সীমানাপ্রাচীর। ছবি : কালের কণ্ঠ

কাঁচাবাজার উন্নয়নের নামে বানার নদের জমি দখল করে নির্মাণ করা হয়েছে শেড। শেডটির আশপাশজুড়ে বালু ফেলে ভরাট করা হয়েছে। পাশেই বিশাল এলাকাজুড়ে চলছে সীমানাপ্রাচীরের নির্মাণকাজ। গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) কার্যালয়ের পেছনে নদের জমি দখলের এই দৃশ্য চোখে পড়ে।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগ আছে, এই কাণ্ড চলছে খোদ ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বেই। দখল পাকাপোক্ত করতে সেখানে স্থাপন করা হয়েছে দুটি ফলক। একটিতে লেখা ‘কাঁচাবাজার উন্নয়নে নতুন শেড নির্মাণ’, আরেকটিতে ‘কাঁচাবাজার উন্নয়নে গার্ড ওয়াল নির্মাণ। ’

স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, যেখানে শেড নির্মাণ করা হয়েছে ও সীমানাপ্রাচীর নির্মাণকাজ চলছে—এ জমিটি নদের। দুই বছর আগেও বর্ষা মৌসুমে ওখানে পানি থাকত, জেলেরা মাছ ধরতেন। প্রায় দুই মাস আগে হঠাৎ ওই জমি দখল শুরু হয়। ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগেই এই কাজ চলছে।

গতকাল দুপুরে সেখানে গিয়ে দেখা গেল, ইউনিয়ন পরিষদের পেছনেই নতুন শেড। অনেকখানি জায়গা বালু দিয়ে ভরাট। এর ঠিক উত্তর পাশে সীমানা দেয়াল নির্মাণ চলছে। গোসিংগা বাজারের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, দেয়ালটি উত্তরে বটতলা ঘাট পর্যন্ত নির্মাণ করা হবে বলে শুনেছেন তাঁরা। পরে পশ্চিম পাশ ভরাট করে দোকানপাট করা হবে। ইউপি চেয়ারম্যানকে ইঙ্গিত করে ওই ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন, কাঁচাবাজার বসানোর কথা বলে দখল করা এই জমি একসময় ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে পরিণত হতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন প্রবীণ শিক্ষক বলেন, ‘যেখানে ওই নির্মাণকাজ চলছে, সেখানে প্রায় ২০ বছর আগেও নদ ছিল, গভীরতাও ছিল অনেক। এখন ইউপি চেয়ারম্যানের এই দখলকাণ্ড অনেককেই উৎসাহিত করবে। এতে নদটির অস্তিত্বই হুমকির মুখে পড়ে যাবে। ’

ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে নদের জমি দখল হচ্ছে কি না এ প্রসঙ্গে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘এ বিষয়ে পরিষদে কোনো আলোচনা হয়নি। কোনো মেম্বারই তা জানেন না। চেয়ারম্যান তাঁর নিজের সিদ্ধান্তে ওই কাজ করছেন। ’ ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার কবির হোসেন শেখ বলেন, ‘আমি দুই-তিন দিন আগে শুনেছি। ওই নির্মাণকাজ ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে কি না তা আগে জানতামই না। ’

গোসিংগা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ছাইদুর রহমান শাহীন দাবি করেন, এটি নদের নয়, বাজারের জমি। গতকাল দুপুরে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমার আগে যে দুজন চেয়ারম্যান ছিলেন, বিভিন্ন সময় তাঁরাই সেখানে মাটি ভরাট করেছেন। আমি শুধু ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয় রক্ষাসহ কাঁচাবাজার বসানোর জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছি। এতে আমার কোনো স্বার্থ নেই। ’

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেহেনা আক্তার বলেন, ‘যেখানে সীমানা দেয়াল নির্মাণ করা হচ্ছে, সেটি নদের জমি। গত মঙ্গলবার সার্ভেয়ারকে পাঠিয়ে সেটি শনাক্ত করেছি। ইউপি চেয়ারম্যানকে ডাকা হয়েছে। ওই সব স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলব তাঁকে। দ্রুত সরিয়ে না নিলে উচ্ছেদ করব। ’

 

 

 



সাতদিনের সেরা