kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০২২ । ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজধানীতে ছুরি মেরে দুজনকে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রাজধানীতে ছুরি মেরে দুজনকে হত্যা

কলাবাগানে নিহত শিপনের স্বজনের আহাজারি। গতকাল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর কলাবাগান এলাকায় বাসা থেকে ডেকে নিয়ে শিপন (১৫) নামের এক কিশোরকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার নিহতের চার প্রতিবেশীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এদিকে পরীবাগ এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) একজনকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় এক কিশোরকে আটক করা হয়েছে।

তারা হলো শাহাদাত হোসেন স্বাধীন, রাব্বী আহম্মেদ ওরফে রাজ ওরফে প্রিন্স রাজ, ইসরাত জাহান সাথী ও তানিয়া আক্তার কান্তা।

নিহত শিপন ফ্রিজ মেরামতের দোকানে কাজ করত। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সে চতুর্থ। গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে। সে ঢাকার গ্রিন রোড স্টাফ কোয়ার্টারে পরিবারের সঙ্গে থাকত।

পুলিশ ও শিপনের পরিবারের সদস্যরা জানায়, ঘটনার দিন রাতে শিপনকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায় স্বাধীন ও রাব্বী। শিপনকে তারা জোরপূর্বক ঘুমের ওষুধ খাওয়ায়। এতে শিপন অচেতন হয়ে পড়লে সাথী ও তানিয়ার সহযোগিতায় শিপনকে কুপিয়ে কাঁঠালবাগান বাজার মসজিদের পাশে ফেলে রেখে যায় তারা। দীর্ঘক্ষণ পরও শিপন বাসায় না ফেরায় পরিবারের সদস্যরা তাকে খুঁজতে বের হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে মসজিদের পাশ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় শিপনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শিপনের বাবা মজিবুর রহমান বলেন, ‘স্বাধীন বাসা থেকে ডেকে নিয়ে শিপনকে খুন করেছে। স্বাধীনের পরিবার পারে না এমন কোনো কাজ নেই। আমরা তাদের শাস্তি চাই। ’ এলাকাবাসী জানায়, স্বাধীনসহ বেশ কয়েকজন মিলে এলাকায় কিশোর গ্যাং ‘টিম কলাবাগান’ গড়ে তুলেছে। তারা এলাকায় চুরি, ছিনতাই ও ইভ টিজিংয়ের মতো অপকর্মে জড়িত।

কলাবাগান থানার ওসি সাইফুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পূর্ব শত্রুতার জেরে এই হত্যাকাণ্ড বলে আমরা জানতে পেরেছি। তাঁর শরীরে একাধিক ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। ’

পরীবাগে ছুরিকাঘাতে হত্যা

শাহবাগ থানার পরীবাগ এলাকায় প্রধান সড়কের ফুট ওভারব্রিজে ছুরিকাঘাত করে হত্যার করা হয়েছে আবদুস সাত্তার ওরফে নীলা হিজড়াকে (২৬)।

পুলিশ সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১টার দিকে নীলাকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ।

শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আরাফাত ইবনে শফিউল্লাহ বলেন, যে কিশোরকে আটক করা হয়েছে, সে পুলিশকে বলেছে, তাকে অনৈতিক কাজের জন্য জোর করছিলেন নীলা। এ সময় সে ছুরি দিয়ে নীলাকে আঘাত করে।

ঢামেক হাসপাতাল সূত্র জানায়, নীলার গ্রামের বাড়ি জামালপুর সদরে। নীলা হাতিরঝিল এলাকায় থাকতেন।

 



সাতদিনের সেরা