kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সবিশেষ

লকডাউনের ভয়ে দোকান ছেড়ে ছুট

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লকডাউনের ভয়ে দোকান ছেড়ে ছুট

চীনজুড়ে মহামারির প্রায় গোড়া থেকেই চলছে ‘শূন্য কভিড’ নীতি। কোথাও কভিড রোগী বা তার সংস্পর্শে আসা কাউকে পাওয়া মাত্রই দেওয়া হচ্ছে ছোট বা বড় পরিসরে লকডাউন। এ কারণে লোকজনকে কখনো কখনো বন্দি থাকতে হয়েছে রেস্তোরাঁ, জিম কিংবা অফিসে। তাই দেশটিতে লকডাউন হয়ে উঠেছে রীতিমতো আতঙ্কের নাম।

বিজ্ঞাপন

এমনই এক ঘটনা অভিনবত্বের জন্য হয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর।

গত শনিবার বাণিজ্যিক শহর সাংহাইয়ের একটি আসবাবের দোকানে উপস্থিত হয়েছিলেন করোনা পজিটিভ রোগীর এক নিকট আত্মীয়। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই লকডাউনের ঘোষণা আসে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে। দরজা বন্ধ করে সবাইকে আটকাতে ছুটে আসেন সরকারের সংশ্লিষ্ট লোকজন। তাঁরা দোকানটি বাইরে থেকে বন্ধ করে দেওয়ার সময় জোর করে দরজা ঠেলে পালিয়ে যান ক্রেতারা। সুইডেনের বহুজাতিক আসবাবের দোকান আইকিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

সাংহাই স্বাস্থ্য কমিশনের উপপরিচালক ঝাও ডানডান গতকাল জানান, ছয় বছর বয়সী এক শিশু সম্প্রতি তিব্বতের লাসা থেকে সাংহাইয়ে এসেছে। সে কভিড সংক্রমিত। তার এক নিকট আত্মীয় সেদিন আইকিয়ায় শোরুমে গেলে দোকানটি তখনই বন্ধ করে দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, নিরাপত্তারক্ষীরা দোকানটির দরজা বন্ধ করার সময় ক্রেতারা ঠেলে দরজা খুলে পালিয়ে যান। তবে পালিয়ে গিয়েও নিস্তার পাচ্ছেন না তাঁরা। স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ঝাও জানান, আইকিয়ার দোকান থেকে পালানো সবাই এবং দোকানের আশপাশ এলাকার মানুষকে দুই দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন এবং পাঁচ দিন স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। সূত্র : বিবিসি

 



সাতদিনের সেরা