kalerkantho

রবিবার । ২ অক্টোবর ২০২২ । ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সুন্দরবন প্লাবিত, উঁচু জায়গার খোঁজে বন্য প্রাণীরা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুন্দরবন প্লাবিত, উঁচু জায়গার খোঁজে বন্য প্রাণীরা

সুন্দরবনের মধ্য দিয়ে তিন ফুট উচ্চতায় পানি বইছে। পানি থেকে বাঁচতে হরিণসহ বিভিন্ন প্রাণী বনের মধ্যে উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। গতকাল সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের দুবলার চর জেলেপল্লী থেকে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

অস্বাভাবিক জোয়ারে পাঁচ দিন ধরে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবন প্লাবিত হচ্ছে। জোয়ারের সময় বনে তিন থেকে সাড়ে তিন ফুট উচ্চতায় পানি প্রবাহিত হচ্ছে। দুবলার চর, করমজল, কটকাসহ বিভিন্ন স্থান ডুবে আছে। হরিণসহ বিভিন্ন ধরনের বন্য প্রাণী উঁচু জায়গার জন্য ছোটাছুটি করছে।

বিজ্ঞাপন

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ এবং লঘুচাপ থেকে নিম্নচাপের পাশাপাশি পূর্ণিমার প্রভাবে পাঁচ দিন ধরে অস্বাভাবিক জোয়ার হচ্ছে। এতে সুন্দরবনের পাশাপাশি বাগেরহাটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। এ ছাড়া টানা বৃষ্টিতে জেলার মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

বিলম্বিত বর্ষায় বিপাকে আছে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার মাহমুদকাটি জেলেপল্লীর বাসিন্দারা। প্রতিদিন পূর্ণিমার জোয়ারে ভাসছে শতাধিক মানুষ। আর ভেসে যাওয়ার আতঙ্কে রয়েছে প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষ। গতকাল রবিবারও টানা বর্ষণ ও নিম্নচাপে প্লাবিত হয় জেলেপল্লীটি।

গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বেশ কিছু হরিণকে সুন্দরবনের দুবলার চর জেলেপল্লী টহল ফাঁড়ির একটি পুকুরপারের উঁচু স্থানে আশ্রয় নিতে দেখা গেছে। বঙ্গোপসাগর আবারও উত্তাল হয়ে ওঠায় ইলিশ ধরতে যাওয়া জেলেরা উপকূলে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ফিরতে শুরু করেছেন। গতকাল বিকেল পর্যন্ত ট্রলার নিয়ে প্রায় ৫০০ জেলে সুন্দরবনের বিভিন্ন নদী-খালে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন বলে বন বিভাগ জানায়। গতকাল দিনভর উপকূলীয় জেলা বাগেরহাটে থেমে থেমে বৃষ্টি হয়। সেই সঙ্গে মাঝেমধ্যে ঝোড়ো বাতাস বয়ে যায়। অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে বাগেরহাট সদর, মোরেলগঞ্জ, কচুয়া, রামপাল, ফকিরহাট, মোংলাসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

বন বিভাগ সূত্র জানায়, পূর্ণিমার প্রভাবে এক সপ্তাহ ধরে আহাওয়া পরিস্থিতি খারাপ। তবে সর্বোচ্চ উচ্চতায় পানি ওঠে গতকাল। পূর্ব বন বিভাগের ৯৫ শতাংশ বনেই জোয়ারে প্লাবিত হয়েছে। এতে হরিণ, শূকর, বানর, রয়েল বেঙ্গল টাইগারসহ সব প্রজাতির বন্য প্রাণীই বিপদগ্রস্ত হয়েছে। সকাল-সন্ধ্যা দুবার প্লাবিত হচ্ছে বন। আজ সোমবার পানি আরো বাড়তে পারে বলে বন বিভাগের আশঙ্কা।

চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল বন্য প্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজাদ কবির বলেন, গত বছর ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে করমজলে পানি উঠেছিল।

 



সাতদিনের সেরা