kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মেহেরপুরের গাংনী

বিএনপি-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, অফিস ভাঙচুর

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিএনপি-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, অফিস ভাঙচুর

মেহেরপুরের গাংনীতে উপজেলা বিএনপি ও ছাত্রলীগের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ির ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার জেরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিএনপি অফিস ভাঙচুর করেন। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করে। গতকাল শনিবার দুপুরে গাংনী উপজেলা শহরের বাসস্ট্যান্ডে ধাওয়াধাওয়ির এ ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার পর বাজারে দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানায়, গতকাল দুপুর ১২টার দিকে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা গাংনী সরকারি ডিগ্রি কলেজ থেকে একটি মিছিল নিয়ে বাসস্ট্যান্ড বাজারে এসে বিএনপি অফিসে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন। এ সময় বিএনপি অফিস থেকে নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে ধাওয়া দিলে ছাত্রলীগের মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

পরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা একত্র হয়ে বিএনপি অফিসে এসে ভাঙচুর চালান। এ সময় তাঁরা ওই অফিস থেকে বিএনপির দলীয় সাইনবোর্ড নামিয়ে ফেলেন। তবে এ ঘটনায় উভয় পক্ষের কেউ হতাহত হয়নি।

গাংনী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন মেঘলা বলেন, ‘আমরা কয়েকজন নেতাকর্মী অন্যদিনের মতো অফিসে বসে চা খাচ্ছিলাম। এ সময় ছাত্রলীগের একটি মিছিল এসে অতর্কিতে আমাদের অফিসে হামলা চালায়। এ সময় বিএনপি নেতাকর্মীরা তাদের ধাওয়া দেয়। পরে তারা আবারও আমাদের অফিসে হামলা চালায়। ’

এদিকে এ ঘটনার পরপরই গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

সমাবেশে যোগ দেন গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মুকুলসহ অন্য নেতারা।

মোহাম্মদ সাহিদুজামান খোকন বলেন, ‘সামনে ১৫ আগস্ট। বিএনপি-জামায়াত আবারও দেশকে অস্থিতিশীল করতে নানা ধরনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। বিনা উসকানিতে আজ তারা ছাত্রলীগের ওপর হামলা চালিয়েছে। ’

গাংনী সংরকারি ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিন রেজা বলেন, ‘আমরা খবর পেয়েছি যুবদল ও ছাত্রদল তাদের অফিসে লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র জড়ো করছে। এসব দিয়ে তারা গাংনী উপজেলা শহরে অরাজকতা চালাবে। দোকানপাট ভাঙচুরসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটাবে। এ কারণেই আমরা তাদের অফিসের সামনে যাই। তখন তারা পূর্বপরিকল্পিতভাবে আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমরা এই হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। ’

মেহেরপুর জেলা বিএনপির সহসভাপতি জাভেদ মাসুদ মিল্টন বলেন, ‘আজকে (গতকাল) আমাদের (বিএনপির) কোনো কর্মসূচি ছিল না। কয়েকজন নেতাকর্মী প্রতিদিনের মতো অফিসে বসে চা খাচ্ছিল। এ সময় ছাত্রলীগ মিছিল সহকারে এসে বিনা উনকানিতে বিএনপি অফিসে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে। ’

গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, ‘বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ’



সাতদিনের সেরা