kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মন্ত্রিসভায় খসড়া অনুমোদন

ভেজাল ওষুধ বিক্রি করলে ১০ বছরের দণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভেজাল ওষুধ বিক্রি করলে ১০ বছরের দণ্ড

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সচিবালয় প্রান্তে যুক্ত হয়ে মন্ত্রিপরিষদের সভায় সভাপতিত্ব করেন। ছবি : পিএমও

ভেজাল ওষুধ উৎপাদন, বিক্রি, মজুদ ও আমদানি করলে ১০ বছরের কারাদণ্ড বা ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রেখে ‘ওষুধ আইন, ২০২২’-এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

একই সঙ্গে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির যৌক্তিকতা তুলে ধরতে জ্বালানি মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার এ বৈঠক হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি বৈঠকে যোগ দেন।

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে অংশ নেন। পরে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদসচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, ওষুধ আইনে ১০৩টা ধারা আছে। আইনটি অনেক বড়। ঔষধ প্রশাসনের কার্যক্রম কী হবে, মান কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে ওষুধ উৎপাদন, বিক্রি, মজুদ ও বিতরণের লাইসেন্স কিভাবে দেওয়া হবে, সে বিষয় রয়েছে আইনের খসড়ায়। কেউ যদি লাইসেন্স অনুযায়ী যা উৎপাদন করার কথা তার বাইরে কোনো কিছু উৎপাদন করে তাহলে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, তা-ও উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এর একটা নির্বাহী বডি থাকবে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে ওষুধ উৎপাদন, বিক্রি, মজুদ, বিতরণ ইত্যাদির জন্য কিভাবে লাইসেন্স দেবে, ফি কত হবে, লাইসেন্স প্রাপ্তির যোগ্যতা কী থাকবে—এগুলো তারা ঠিক করবে। আবার যদি কেউ ভুলত্রুটি করে বা অন্যায় কিছু করে, কিভাবে তার লাইসেন্স স্থগিত করা যাবে সেটাও উল্লেখ করা আছে।

সচিব বলেন, খসড়া আইনে ৫৪ থেকে ৭৫ ধারা পর্যন্ত প্রায় ২২টা ধারায় শাস্তির কথা বলা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রত্যেক জেলা সদরে একটা করে আদালত থাকবে। ওষুধ কর্তৃপক্ষ তদন্ত করবে, যেহেতু এটা টেকনিক্যাল বিষয়। তদন্তটা তারা করবে। লাইসেন্স ছাড়া কেউ ওষুধ উৎপাদন ও আমদানি করলে ১০ বছর কারাদণ্ড ও অনধিক ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড দেওয়া যাবে। এটিই সর্বোচ্চ শাস্তি। কেউ নিবন্ধন ছাড়া ওষুধ উৎপাদন করে রপ্তানি, বিক্রি, মজুদ অথবা প্রদর্শন করলে এবং ভেজাল ওষুধ উৎপাদন, বিক্রি, মজুদ ও বিতরণ করলেও এই শাস্তি পেতে হবে। সরকারি ওষুধ চুরি করে বিক্রি করলেও একই শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে আইনের খসড়ায়।

বর্তমান আইনে অপরাধের ধরন অনুযায়ী সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান রয়েছে তিন বছরের কারাদণ্ড ও দুই লাখ টাকা জরিমানার।

তেলের মূল্যবৃদ্ধির যৌক্তিকতা তুলে ধরার নির্দেশ : জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির যৌক্তিকতা তুলে ধরতে জ্বালানি মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, জ্বালানি মন্ত্রণালয় ও বিপিসির চেয়ারম্যান এর মধ্যে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কথা বলেছেন। বিষয়গুলো মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়েছে। জ্বালানি মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে, তেলের মূল্যবৃদ্ধির যৌক্তিকতা নিয়ে তাঁরা যেন আবারও ব্রিফ করেন।

জাতীয় শিল্পনীতির খসড়া অনুমোদন : আগামী আট বছরের মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারের জন্য দেশীয় পণ্য উৎপাদনের শক্তিশালী ভিত তৈরির লক্ষ্য নিয়ে ‘জাতীয় শিল্পনীতি ২০২২’-এর খসড়া গতকাল অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, শিল্পনীতির খসড়ায় ২০টি অধ্যায় রয়েছে।   

জেলা জজকে জমির মামলা নিষ্পত্তির ক্ষমতা : জমি নিয়ে বিরোধের মীমাংসায় ল্যান্ড সার্ভে আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠন না হওয়া পর্যন্ত জেলা জজকে মামলা নিষ্পত্তির ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। দ্য স্টেট অ্যাকুইজিশন অ্যান্ড টেন্যান্সি (অ্যামেন্ডমেন্ট) অ্যাক্ট ২০২২-এর খসড়ায় এ বিধান রেখে গতকাল  চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।



সাতদিনের সেরা