kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

সবিশেষ

৫০ বছর পর সুস্থ হয়েছেন ‘নাপাম গার্ল’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৫০ বছর পর সুস্থ হয়েছেন ‘নাপাম গার্ল’

৫০ বছর আগে তাঁর সেই ছবি দেখে চমকে উঠেছিল বিশ্ব। পেছনে মার্কিন যুদ্ধবিমান থেকে ফেলা হচ্ছে নাপাম বোমা। আর বিবস্ত্র অবস্থায় প্রাণের ভয়ে ছুটছে এক আহত শিশু। চিত্র সাংবাদিক নিক উটের তোলা সেই আলোচিত ছবির মেয়েটি পরবর্তী সময়ে ‘নাপাম গার্ল’ নামে পরিচিত হয়ে ওঠেন।

বিজ্ঞাপন

ছবির ৯ বছরের সেই শিশু, কিম ফুক ফান টি বোমার ঘায়ে ক্ষতবিক্ষত হয়েছিলেন। দীর্ঘ ৫০ বছর পর কিম ফুক ফিরছেন স্বাভাবিক জীবনে। যে দেশের হামলায় তাঁর এই অবস্থা হয়েছিল, সেই যুক্তরাষ্ট্রেই হয়েছে তাঁর ত্বকের চিকিৎসা।

১৯৭২ সালের জুনে ভিয়েতনামে কিম ফুকের গ্রামে হামলা করে মার্কিন যুদ্ধবিমান। নাপাম বোমা মৃত্যু আর ধ্বংস ডেকে এনেছিল ছোট্ট গ্রামটিতে। বোমা থেকে বাঁচতে আর পাঁচজনের মতোই ছুটছিলেন কিম ফুক। সে দৃশ্যটিই লেন্সবন্দি করেছিলেন নিক। এই ছবির জন্যই পুলিত্জার পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি।

১৯৯২ সালে স্বামীর সঙ্গে ভিয়েতনাম ছেড়ে কানাডায় আশ্রয় নেন কিম ফুক। এ সময় তাঁর যোগাযোগ হয় যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামির ত্বক বিশেষজ্ঞ জিল জোয়াবেলের। কিম ফুকের কাছে গোটা ঘটনা শোনার পর জিল পুরো চিকিৎসাই বিনা মূল্যে করার কথা জানান।

শুরু হয় দীর্ঘ চিকিৎসা। অতঃপর ক্ষতবিক্ষত ত্বক সারিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন কিম ফুক। সুস্থ হয়ে তিনি বলেন, ‘৫০ বছর পর এখন আমি মুক্ত। আমাকে আর যুদ্ধের ক্ষতচিহ্ন বয়ে বেড়াতে হবে না। আর নাপাম গার্ল নামে আমাকে কেউ ডাকবে না। আমি একজন বন্ধু, যে যুদ্ধের ক্ষত মুছে বিশ্বশান্তির আহ্বান জানাচ্ছে। ’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

 

 



সাতদিনের সেরা