kalerkantho

রবিবার । ১৪ আগস্ট ২০২২ । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৫ মহররম ১৪৪৪

বসুন্ধরা চক্ষু হাসপাতাল

অত্যাধুনিক অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অত্যাধুনিক অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন

চক্ষু রোগীদের চিকিৎসাসেবার মান আরো উন্নত করতে গতকাল বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে অত্যাধুনিক অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন করা হয়েছে। উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকাসহ দেশের চক্ষু রোগীদের সেবার মান আরো ভালো করার লক্ষ্যে বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে একটি অত্যাধুনিক অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান সেন্টারটি উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আহমেদ আকবর সোবহান পর্যায়ক্রমে বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের চিকিৎসাসেবা ও গবেষণার মান বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এ ক্ষেত্রে তিনি সব ধরনের সহায়তা করার আশ্বাস দেন।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনের পর তিনি সেন্টারটির কার্যক্রম পরিদর্শন করে দেখেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. সালেহ আহমেদ, বসুন্ধরা গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার এ কে শামিম, ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ বসুন্ধরার মহাপরিচালক মুফতি আরশাদ রহমানি, বসুন্ধরা গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান (তুহিন), মো. নাজমুল ইসলাম ভূইয়া, মেজর মো. মাহবুবুল ওয়াদুদ (অব.) ও বাংলানিউজটোয়েন্টিমফার ডটকমের সম্পাদক জুয়েল মাজাহারসহ বসুন্ধরা গ্রুপের অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত হাসপাতালটিতে স্থাপিত অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মাধ্যমে ছানিজনিত রোগের অপারেশনের সঠিক পাওয়ারের লেন্স নির্ণয় নিখুঁতভাবে করা যাবে। চোখের কর্নিয়া এবং গ্লুকোমা রোগের অত্যাধুনিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা যাবে এবং চোখের রেটিনা চিকিৎসার সব ধরনের অত্যাধুনিক পরীক্ষা করা সম্ভব হবে।

বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. সালেহ আহমেদ বলেন, এই অপথ্যালমিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার উদ্বোধনের মাধ্যমে রোগীদের আগের চেয়ে আরো উন্নত চিকিৎসা দেওয়া যাবে।



সাতদিনের সেরা