kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পাবনার হার্ডিঞ্জ ব্রিজে চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে ঢাবি ছাত্রের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

১৮ মার্চ, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাবনার হার্ডিঞ্জ ব্রিজে চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে ঢাবি ছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়া ও পাবনার মধ্যবর্তী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত মাহবুব আলম বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এবং  বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলে থাকতেন। তিনি জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান মিঠুর ছেলে।

কুষ্টিয়ার পোড়াদহ রেলওয়ে থানা সূত্র জানায়, চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে মাহবুবের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

বিজ্ঞাপন

মাহবুবের বন্ধু ইমরান বলেন, ‘গত বুধবার সকাল ১১টায় আমার সঙ্গে মাহবুবের শেষবার কথা হয়। সে ট্যুরে যাবে বলে সন্ধ্যায় হল থেকে বের হয়। একটু আগে জানতে পারি, ট্রেনে কুষ্টিয়া যাওয়ার পথে সে মারা গেছে। ’

বুধবার দুপুর ১টার দিকে মৃতের ফেসবুক প্রফাইলে গিয়ে দেখা যায়, তিনি ১০ ঘণ্টা আগে ‘স্টোরি’ আপলোড করেছিলেন। সেখানে ট্রেনের ছাদে সদ্যঃপরিচয় হওয়া একজনের সঙ্গে সেলফি তোলেন। ক্যাপশনে লেখেন ‘অব টু কুষ্টিয়া’ (কুষ্টিয়ার উদ্দেশে যাত্রা), কঠিন তবুও আনন্দঘন, মাঝপথে জুটেছিল অপরিচিত সঙ্গী।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার জানান, তাঁর আগের শিফটের ডিউটিরত স্টেশন মাস্টার হার্ডিঞ্চ ব্রিজের নিরাপত্তা রক্ষীদের কাছ থেকে জানতে পারেন, সেখানে একটি লাশ পাওয়া গেছে। এরপর তিনি পোড়াদহ রেলওয়ে থানাকে বিষয়টি জানান। পরে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ এসে লাশ পোড়াদহ রেলওয়ে থানায় নিয়ে যায়।

পোড়াদহ রেলওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম জানান, জাতীয় পরিচয়পত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয়পত্র দেখে তাঁর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাঁর মাথা, মুখ ও হাঁটুতে ক্ষত ছিল। নিহতের পরিবার ও স্বজনদের সঙ্গে কথা হয়েছে।

থানার ওসি মনজের আলী জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 



সাতদিনের সেরা