kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

‘কম্বল শইলো দিয়া আর ঠাণ্ডায় কাঁপতাম নায়’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘কম্বল শইলো দিয়া আর ঠাণ্ডায় কাঁপতাম নায়’

ময়মনসিংহের ত্রিশালের আশেকী দারুল উলুম মাদরাসায় হাফেজে কোরআন শিক্ষার্থীদের মাঝে গতকাল কম্বল বিতরণ করা হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

‘ম্যালা দিন দইরা শীতে কষ্ট করতাছি, কেউ একটা কম্বল দিল না, আইজ আফনেরা একটা কম্বল দিছইন। পরিবারের সবাইরে লইয়া শীতটা কোনো রহমে কাডাইতে পারবাম। আফনাদের লাইগা ভগবানের কাছে প্রার্থনা করি। ’ বসুন্ধরা গ্রুপের দেওয়া কম্বল পেয়ে কথাগুলো বলছিলেন নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের নলছাপ্রা গ্রামের দরিদ্র গৃহবধূ মিথিলা হাজং।

বিজ্ঞাপন

বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় ও কালের কণ্ঠ শুভসংঘের আয়োজনে গতকাল সোমবার কলমাকান্দার আট ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের ৫০০ শীতার্ত মানুষকে কম্বল দেওয়া হয়। এ ছাড়া এদিন জেলার পূর্বধলা, ময়মনসিংহের গফরগাঁও ও ত্রিশাল উপজেলা এবং হবিগঞ্জের নীবগঞ্জ উপজেলায় দরিদ্র অসহায় মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়।

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় গতকাল সকালে উপজেলা সদরের শেখ রাসেল স্টেডিয়াম ও নাজিরপুর ইউনিয়নের নলছাপ্রা স্কুল মাঠে কম্বল বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলমাকান্দা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোহেল রানা, স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিরা এবং কালের কণ্ঠ শুভসংঘের সদস্যরা। কলমাকান্দার ইউএনও মো. সোহেল রানা গরিব অসহায় শীতার্ত লোকজনের পাশে থাকায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানান।

পূর্বধলায় এদিন ২০০ শীতার্ত মানুষকে কম্বল দেওয়া হয়। সকালে মৌদাম সেসিপ মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এবং বিকেলে পূর্বধলা প্রেস ক্লাব চত্বরে কম্বল বিতরণ করা হয়।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের ২০০ শীতার্ত মানুষের মাঝে গতকাল বিকেলে কম্বল বিতরণ করা হয়। ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিকসহ কালের কণ্ঠ শুভসংঘের সদস্যরা।

কম্বল গায়ে জড়িয়ে কইড়া গ্রামের ৬০ বছর বয়সী কানাই রায় বলেন, ‘শীতে অনেক কষ্ট পাইছি। এই কম্বল শইলো দিয়া ওখন আর ঠাণ্ডায় কাঁপতাম নায়। ’  পুরানগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল্লাহ মিয়ার স্ত্রী আশিয়া খাতুন (৬০) বলেন, ‘অনেক দিন ধরে শীতে কষ্ট পাইতেছি, কেউ একটা কম্বল দিল না। আজ আপনারা দিলেন। পরিবারের সবাইরে লইয়া শীতটা কোনো রকম কাডাইতে পারমু। ’

গতকাল বিকেলে ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌর শহরের মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে শতাধিক অসহায় বয়স্ক নারী, শিক্ষার্থী, পত্রিকার হকার, প্রতিবন্ধী মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তাজুল ইসলাম, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ডা. কে এম এহসান, গফরগাঁও থানার ওসি ফারুক আহম্মেদ, উপজেলা পাট কর্মকর্তা ফজলুল হকসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও কালের কণ্ঠ শুভ সংঘের সদস্যরা। কম্বল পেয়ে পৌর শহরের শারীরিক প্রতিবন্ধী হাইজউদ্দিনের মা মনোয়ারা খাতুন (৭৫) বলেন, ‘এই কনকইন্যা শীতের মইধ্যে অসহায় গরিবরে তোমরা কম্বল দেয়া আরাম দিছ। আমার পঙ্গু পোলাডা আরামে থাকবো। আল্লায় তোমগর মঙ্গল করবো। ’

দুপুরে ত্রিশাল উপজেলার চিকনা গ্রামের আশেকী দারুল উলুম মাদরাসায় হাফেজে কোরআন শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোখলেছুর রহমান সবুজ, ত্রিশাল প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক এইচ এম জোবায়ের হোসেন, মতিউর রহমান সেলিম, সংবাদপত্র এজেন্ট কামাল হোসেন প্রমুখ।

[প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়েছেন নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ), গফরগাঁও (ময়মনসিংহ), ত্রিশাল (ময়মনসিংহ), কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) ও পূর্বধলা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি। ]



সাতদিনের সেরা