kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

সবিশেষ

৭৪ বছর পর দুই ভাইয়ের সাক্ষাৎ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৭৪ বছর পর দুই ভাইয়ের সাক্ষাৎ

এ যেন উপমহাদেশের বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের দৃশ্য। ৭৪ বছর পর দুই সহোদর ভাইয়ের দেখা হলে তাকে আর কী বলা যায়। গত বুধবার এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ভারত ও পাকিস্তানের সীমান্তে।

ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসন অবসানের পর দেশ বিভাগ ভেঙেছিল কোটি মানুষের ঘর।

বিজ্ঞাপন

বহু পরিবার হয় বিচ্ছিন্ন। ভারতীয় উপমহাদেশের দুটি অঞ্চল পাঞ্জাব ও বাংলা বিভক্ত হয়ে যুক্ত হয় ভারত ও পাকিস্তান নামের দুটি স্বাধীন রাষ্ট্রের সঙ্গে। নিছক ধর্মের ভিত্তিতে বিভাজন হওয়ায় দুই দেশ থেকে বিপুলসংখ্যক মানুষ অন্য অংশে যেতে বাধ্য হয়। হাবিব ও মোহাম্মদ সিদ্দিক পড়েন তাদেরই দলে। ৭৪ বছর পর গত বুধবার মিলন হয়েছে ভারত ও পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের এ দুই বাসিন্দার। ৭৮ বছর বয়সী হাবিব থাকেন ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে। আর ৮০ বছর বয়সী মোহাম্মদ সিদ্দিক পাকিস্তানি পাঞ্জাব প্রদেশের ফুরগান গ্রামের বাসিন্দা। ১৯৪৭ সালে দেশভাগের সময় বিচ্ছিন্ন হয়েছিলেন তাঁরা। মোহাম্মদ সিদ্দিক জানান, ভারতের পাঞ্জাবে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়লে তাঁর মা-বাবা ভয় পেয়ে পাকিস্তানে চলে আসেন। সীমান্তে দুই ভাইয়ের দেখা হওয়ার সময় এক অসাধারণ দৃশ্যের অবতারণা হয়। গণমাধ্যমের ছবিতে দেখা যায়, দুই ভাই পরস্পরকে আলিঙ্গন করে কাঁদছেন। পাকিস্তান শাসিত পাঞ্জাবের রাভি নদীর তীরের কর্তারপুর করিডরে তাঁরা দেখা করেন। শিখ ধর্মের পবিত্র স্থান হিসেবে এই জায়গাটি ভিসামুক্ত রেখেছে দুই দেশ।   দুই ভাইয়েরই ধারণা ছিল, অন্যজন আর বেঁচে নেই। দুই বছর আগে কানাডার একজন শিখ সমাজকর্মীর কাছ থেকে জানা যায়, তাঁরা দুজনই বেঁচে আছেন। করোনা মহামারি তাঁদের সাক্ষাতে দেরি করিয়ে দেয়। সূত্র : দ্য ডন

 



সাতদিনের সেরা