kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সহিংসতায় আরো দুজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৭ মিনিটে



সহিংসতায় আরো দুজনের মৃত্যু

নির্বাচনী বিরোধের জের ধরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের নাওড়ায় গত রাতে পরাজিত ইউপি সদস্যের বাড়িতে আগুন দেয় বিজয়ী সদস্যের লোকজন। ছবি : কালের কণ্ঠ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ার চরে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের দিন রবিবার সংঘর্ষের সময় গুলিবিদ্ধ যুবলীগকর্মী মারা গেছেন। ঢাকার বেসরকারি হেলথকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। নওগাঁর বদলগাছীর বিলাশবাড়ী ইউনিয়নে নির্বাচন-পরবর্তী সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন এক ব্যক্তি।

এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে নির্বাচনে জয়-পরাজয় ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

হামলায় আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িসহ পাঁচটি ঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের নাওড়া এলাকায় গতকাল রাত ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ছাড়া আট জেলায় নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় গুলিবিদ্ধসহ আরো অন্তত ৭৩ জন আহত হয়েছে।

সর্বশেষ দুজন নিয়ে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় ২২ জনের মৃত্যু হলো। প্রথম ধাপে সাত এবং দ্বিতীয় ধাপকেন্দ্রিক সহিংসতায় ৪১ জন নিহত হয়। আর রাজবাড়ীতে আসন্ন চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে এক সম্ভাব্য প্রার্থী গুলিতে নিহত হন।

এদিকে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জের গাড়াগ্রাম ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা এবং বিজিবির ল্যান্স নায়েক রুবেল হোসেন মণ্ডল (৩৫) নিহত এবং লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জের ইছাপুর ইউপি নির্বাচনে নৌকার এজেন্ট ছাত্রলীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন সজিব হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে।

কুলিয়ার চরে নিহত যুবলীগকর্মী দেলোয়ার হোসেন উপজেলার দক্ষিণ গোবরিয়া গ্রামের মো. ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে। দেলোয়ারকে নৌকার প্রার্থী এনামুল হক আবুবক্কর এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম নিজের কর্মী বলে দাবি করেছেন। গত রবিবার নির্বাচন চলাকালে গোবরিয়া আবদুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এই দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কয়েক রাউন্ড শটগানের গুলি ছোড়ে। এ সময় দেলোয়ার, তাঁর এক ভাইসহ চারজন গুলিবিদ্ধ হয়। তবে কুলিয়ার চর থানার ওসি গোলাম মোস্তফা কালের কণ্ঠকে বলেন, দেলোয়ার গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন কি না তাঁরা তা নিশ্চিত নন।

নওগাঁর বদলগাছীর বিলাশবাড়ী ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চকাবীর এনায়েতপুর গ্রামে গত সোমবার হামলায় আহত বিধান চন্দ্র গতকাল দুপুরে বগুড়ার শহীদ জিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। তিনি ওই ওয়ার্ডে নবনির্বাচিত মেম্বার শাহিনের সমর্থক। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত সোমবার দুপুরে নবনির্বাচিত মেম্বার আনন্দ মিছিলসহ বাড়ি বাড়ি গিয়ে লোকজনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। পরে তিনি পরাজিত মেম্বার প্রার্থী মিজানুর রহমান মজনুর বাড়িতে সান্ত্বনা সাক্ষাৎ করতে যান। এ সময় আনন্দ মিছিলে পরাজিত প্রার্থী এবং তাঁর লোকজনের হামলায় নির্বাচিত মেম্বার, বিধান চন্দ্রসহ সাত-আটজন আহত হয়।

বদলগাছী থানার ওসি মো. আতিকুল ইসলাম জানান, দুই পক্ষের মারামারির ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। বিধান চন্দ্রের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো হামলা-সংঘর্ষ : রূপগঞ্জের ঘটনায় স্থানীয়রা জানায়, দ্বিতীয় ধাপে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহেদ আলীর কাছে পরাজিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী মিজানুর রহমান মিজান। এই মিজান সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের ভাই। ভোটে হেরে মিজান তাঁর অনুসারী নাওড়ার বিজয়ী ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিনকে দিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের ওপর হামলা করাচ্ছেন। গতকাল মিজান ও জসিমের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা নাওড়ার পরাজিত সদস্য প্রার্থী মোশাররফ হোসেনসহ তাঁর লোকজনের ওপর হামলা চালায়। কয়েকটি বাড়িঘরে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। বাধা দিলে তারা গুলি ছোড়ে। এতে দুজন গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের খবর দিয়ে আগুন নেভানো হয়েছে। পুলিশ এরই মধ্যে অভিযান শুরু করছে। যারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

হামলায় গুলিবিদ্ধ দুজনকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে থেকে চিকিৎসক তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে হস্তান্তর করেন। আহত বাকিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্সের ডা. নুর জাহান আরা খান।

মাদারীপুর সদরের কেন্দুয়া ইউপি নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় সাতজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। তালতলা গ্রামে সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষ হয়।

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার চাচুড়ী ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত সদস্য পদপ্রার্থী কামরুল ফকিরকে (৫০) বিজয়ী মনিরুল ইসলামের সমর্থকরা কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে বলে অভিযোগ। সোমবার রাতে সুমেরুখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কামরুল খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

কালিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. আব্দুল গফুর বলেন, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে; পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

মাগুরার শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতী ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ডে বিজয়ী সদস্য পদপ্রার্থী জীবন বিশ্বাস ও পরাজিত সদস্য পদপ্রার্থী প্রমথ বিশ্বাসের সমর্থকদের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়। গতকাল সকালে বটতলা বাজার এলাকার এ ঘটনায় জীবন বিশ্বাসসহ ১৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। জীবন এক ভোটের (প্রাপ্ত ভোট ৯৯৭) ব্যবধানে জয়ী হন। শালিখা থানার ওসি তারক বিশ্বাস বলেন, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

মেহেরপুরের বুড়িপোতা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত সদস্য পদপ্রার্থী ও সাবেক সদস্য শরিফুল ইসলামের ১৮ কাঠা জমির কাঁদিসহ ৪০০ কলাগাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে বিজয়ী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলমের কর্মীদের বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। শরিফুল বুড়িপোতা গ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। তিনি তিনবারের নির্বাচিত সদস্য ছিলেন। তবে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আমাকে সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করতে আমার কর্মী-সমর্থকদের নাম জড়ানো হয়েছে। ’

মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারা খান বলেন, জমির মালিকের অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের কাষ্টাভাঙ্গা ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বিজয়ী প্রার্থী মো. রাশেদুল ইসলাম, তাঁর বাবা, ভাই ও এক প্রতিবেশীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে পরাজিত মেম্বার পদপ্রার্থী মো. কোরবান আলীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটে সোমবার রাতে সাতগাছিয়া গ্রামে।

হামলাকারীদের ধারালো দায়ের কোপে রাশেদুলের ডান পা কেটে যায়। রাশেদুল ও তাঁর বাবা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার পুষ্পকাটি ইউপিতে বিজয়ী ও পরাজিত সদস্য প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ছয়জন আহত হয়েছে; ভাঙচুর করা হয়েছে কয়েকটি বাড়িঘর। সোমবার রাতের এ ঘটনায় ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রাতেই নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য গোলাম রব্বানীসহ ৩৫ জনের নাম উল্লেখসহ অচেনা আরো ৪০ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন পরাজিত শাহেদুজ্জামান রিপন।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ি ও কয়েকজনের বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দির বহরপুর ইউপির ৯ নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী সুফল কুমার দাসের ছেলে সুজয় কুমার দাসকে (২৩) মারধর এবং কর্মী মো. রাশেদুল বিশ্বাসকে (৪০) পুড়িয়ে মারার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিজয়ী প্রার্থী আরব আলী শেখের ছেলে টিটুল শেখ ও সমর্থকদের বিরুদ্ধে। গতকাল সকালে ঘটনা দুটি ঘটে। থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ করা হয়েছে।

বগুড়ার ধুনটের চিকাশী ইউপিতে নৌকার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নাজমুল কাদির শিপনের (তৃতীয় ধাপে পরাজিত) পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেওয়ায় দুই সমর্থককে পিটিয় আহত করা হয়েছে।

দুই মামলা : কিশোরগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউপি নির্বাচনে জাপার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মারুফ হোসেন অন্তিককে প্রধান আসামি করে ৯৫ জনের নামে মামলা হয়েছে।

রামগঞ্জের ইছাপুর ইউনিয়নের ঘটনায় নিহত সাজ্জাদ হোসেন সজিবের বোন সোনিয়া আক্তার গতকাল থানায় একটি মামলাটি করেন।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কালের কণ্ঠের প্রতিনিধিরা]

 



সাতদিনের সেরা