kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সন্ত্রাসীদের গুলিতে প্রাণ হারালেন ‘জনসংহতির নেতা’

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সন্ত্রাসীদের গুলিতে প্রাণ হারালেন ‘জনসংহতির নেতা’

রাঙামাটি সদর উপজেলার বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়নে সন্ত্রাসী হামলায় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম আবিষ্কার চাকমা (৪০)। তিনি সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির ‘সশস্ত্র রাজনীতি’র সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে দাবি করছে একাধিক সূত্র।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ভোরে বন্দুকভাঙ্গায় একটি বাসায় সোফায় বসা অবস্থায় তাঁকে গুলি করে হত্যা করে চলে যায় একটি সশস্ত্র গ্রুপ।

বিজ্ঞাপন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ছবিতে ঘরে সোফার ওপর তাঁর গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ দেখা যায়। কারা ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছে সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ওই ব্যক্তি আবিষ্কার চাকমা বলে নিশ্চিত করেছে একাধিক সূত্র।

রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তাপস রঞ্জন ঘোষ জানান, গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন মারা গেছেন—এমন খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি লাশ উদ্ধার করেছে। নিহত ব্যক্তির নাম-পরিচয় সম্পর্কেও নিশ্চিত কোনো তথ্য জানাতে পারেননি তিনি।

বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান বুরুন কান্তি চাকমা বলেন, ‘আমার ইউনিয়নের কিচিং আদাম এলাকায় আবিষ্কার চাকমা নামের একজনকে মানিক্য চাকমা নামের এক ব্যক্তির বাসায় কে বা কারা গুলি করে হত্যা করেছে বলে শুনেছি। নিহত ব্যক্তি কোনো দল করে কি না আমি জানি না। এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানি না। ’

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য নানাভাবে যোগাযোগ করেও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির দায়িত্বশীল কারো সঙ্গেই কথা বলা সম্ভব হয়নি। দীর্ঘদিন ধরে গণমাধ্যমের যোগাযোগের বাইরে রয়েছেন সংগঠনটির নেতারা।

প্রসঙ্গত, বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়নটি পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নিয়ন্ত্রিত এলাকা হিসেবে পরিচিত। তবে গত শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) ওই এলাকায় ইউপিডিএফের একটি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে একে-৪৭ রাইফেলসহ তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছিল যৌথ বাহিনী।

 



সাতদিনের সেরা