kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ২৮ জানুয়ারি ২০২২। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বাসে হাফ ভাড়া

আবারও সংঘর্ষ, আগের দিন হামলা করেন ছাত্রলীগকর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৫ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবারও সংঘর্ষ, আগের দিন হামলা করেন ছাত্রলীগকর্মীরা

বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে মঙ্গলবার শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে হামলার পর গতকাল বুধবার রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড় এলাকায় কর্মসূচি পালন করেননি সাধারণ শিক্ষার্থীরা। গতকাল তাঁরা গুলিস্তানে সড়ক দুর্ঘটনায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নেন। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, আজ বৃহস্পতিবার আবার তাঁরা হাফ ভাড়ার দাবিতে কর্মসূচি পালন করবেন।

এদিকে গত মঙ্গলবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর যাঁরা হামলা চালিয়েছেন তাঁরা ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী বলে শনাক্ত করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

হামলাকারীদের টার্গেট ছিল সিটি কলেজ ও ধানমণ্ডি আইডিয়াল কলেজের ছাত্ররা। ঘটনার জের ধরে গতকালও তিন কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল সকালে ধানমণ্ডির পপুলার হাসপাতালের সামনে সিটি কলেজ ও ঢাকা কলেজের ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এক পর্যায়ে ধানমণ্ডি আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষে হামলা চালায় একটি দল। এতে অন্তত ১০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এ সময় তিন কলেজের কিছু শিক্ষার্থী ছাড়া সাধারণ শিক্ষার্থীরা ছিলেন না।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী এনজামুল হক রামিম ও আবু সাঈদ বলেন, গতকাল তাঁরা সায়েন্স ল্যাবরেটরি এলাকায় ছিলেন না। নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যুর খবর পেয়ে তাঁরা গুলিস্তানে গিয়ে সড়ক অবরোধ করেন।

ঢাকা কলেজ ও সিটি কলেজের কয়েকজন ছাত্র পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে জানান, মঙ্গলবার আন্দোলন চলাকালে বিরোধের জেরে সিটি কলেজ ও আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীর ওপর হামলা চালান ঢাকা কলেজের কয়েকজন ছাত্রলীগকর্মী।

মঙ্গলবার দুপুরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সায়েন্স ল্যাবরেটরি থেকে মিছিল নিয়ে নিউ মার্কেটের দিকে যান। মিছিলটি ঢাকা কলেজের বিপরীত পাশের পেট্রল পাম্পের সামনে পৌঁছলে সেখানে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের কর্মী খায়রুল হাসুর সঙ্গে অ্যাম্বুল্যান্স যাওয়া নিয়ে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে হাসু শিক্ষার্থীদের একজনকে চড় মারলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা একত্র হয়ে হাসুকে মারধর করেন। পরে হাসু দৌড়ে ঢাকা কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে ছাত্রলীগের অন্য কর্মী ও শিক্ষার্থীদের ডেকে এনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালান।

সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানান, মারধরে অংশ নেওয়া বেশির ভাগই ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী। এঁদের মধ্যে খায়রুল হাসু ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের আগামী কমিটিতে পদপ্রত্যাশী বলে জানা গেছে। শহীদ ফরহাদ হোসেন হল তাঁর নিয়ন্ত্রণে। হাসুর গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ী জেলায়। এ ছাড়া তিনি ঢাকায় রাজবাড়ী ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক। মারধরে আরো অংশ নেন ঢাকা কলেজের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী মহসিন হোসেন। তিনি শহীদ ফরহাদ হোসেন হলে থাকেন।

হাসুকে মারধর এবং বাইক ভাঙচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন ঢাকা কলেজে অধ্যয়নরত রাজবাড়ী জেলার শিক্ষার্থীরা। গতকাল দুপুরে ঢাকা কলেজের ফটকের সামনে ‘ঢাকাস্থ রাজবাড়ী ছাত্রকল্যাণ পরিষদ’ ব্যানারে এই মানববন্ধন করা হয়।

আইডিয়াল কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তরুণ কুমার গাঙ্গলী বলেন, ঢাকা কলেজের কিছু ছাত্র আইডিয়াল কলেজে এসে ভাঙচুর করেছেন।      

ঢাকা সিটি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক বেদার উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থীদের ওপর ঢাকা কলেজের কিছু শিক্ষার্থী হামলা চালিয়েছে। ’

 



সাতদিনের সেরা