kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ মাঘ ১৪২৮। ২০ জানুয়ারি ২০২২। ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ঝালকাঠিতে তেলবাহী জাহাজে আগুন নিহত ১, দগ্ধ ৭

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

১৩ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে




ঝালকাঠিতে তেলবাহী জাহাজে আগুন নিহত ১, দগ্ধ ৭

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে একটি তেলবাহী জাহাজে আগুন লেগে একজন নিহত হয়েছেন। দগ্ধ হয়েছেন আরো সাতজন। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সুগন্ধা নদীর পোনাবালিয়া খেয়াঘাট এলাকায় নোঙর করে রাখা জাহাজটিতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে জাহাজের তলা ফেটে ভেতরে পানি ঢুকে যায়।

আগুনে জাহাজটির সুকানি মো. কামরুল ইসলাম (৩৫) দুর্ঘটনাস্থলেই মারা যান। তাঁর গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে।

আহত শ্রমিকরা জানান, ঢাকা থেকে জ্বালানি তেল নিয়ে ‘সাগর নন্দিনী-৩’ জাহাজটি ঝালকাঠির ডিপোতে নোঙর করে রাখা হয়েছিল। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে জাহাজ থেকে খালাসের প্রস্তুতি নিলে পাম্পকক্ষে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণ থেকে আগুন লেগে ছড়িয়ে পড়ে। এতে সুকানি এবং কর্মরত সাত শ্রমিক দগ্ধ হন। দুর্ঘটনাস্থলেই সুকানি মারা যান।

খবর পেয়ে ঝালকাঠি ও বরিশাল থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে তাঁদের  বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক জোহর আলী ও পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ঝালকাঠি পদ্মা অয়েল কম্পানির কর্মী আব্দুস সালাম জানান, জাহাজটি প্রায় ১৫ লাখ লিটার পেট্রল, অকটেন ও ডিজেল নিয়ে ঝালকাঠির পদ্মা অয়েল কম্পানির সামনে সুগন্ধা নদীতে নোঙর করা ছিল। পেট্রল ও অকটেন খালাস শেষে ডিজেল খালাসের প্রস্তুতি চলছিল।

বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক কোবাদ আলী সরদার জানান, এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। জাহাজটি যাতে ডুবে না যায় সেই চেষ্টা চলছে। ভেতরে থাকা জ্বালানিও খালাসের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী বলেন, ‘বিস্ফোরণের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। জাহাজে ১৩ জন স্টাফ ছিল। তাদের মধ্যে আটজন দগ্ধ হয়। একজন মারা গেছে। আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।’



সাতদিনের সেরা