kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

সবিশেষ

সুই ছাড়া টিকা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুই ছাড়া টিকা

সুই ফোটার আতঙ্কে টিকা নিতে চায় না অনেকেই। আর শিশুরা তো ভয়ে কান্নাকাটি শুরু করে দেয়। এমন সব মানুষের কথা মাথায় রেখে সিরিঞ্জ ও সুই ছাড়াই করোনার টিকা তৈরি করেছেন গবেষকরা। তাঁরা বলছেন, শিগগিরই এ ধরনের টিকা প্রয়োগ করা যাবে।

বিজ্ঞাপন

গবেষকরা বলছেন, ওষুধের প্রলেপ দেওয়া ছোট ব্যান্ড-এইডের মতো একটি জিনিস (প্যাঁচ) ত্বকে লাগিয়ে দেওয়া হবে। এটিই শরীরে টিকার মতো কার্যকর হবে। সায়েন্স অ্যাডভান্সেস সাময়িকীতে গত শুক্রবার এক প্রতিবেদনে নতুন গবেষণার তথ্য প্রকাশিত হয়। গবেষণায় যে ফল পাওয়া গেছে তাকে সম্ভাবনাময় বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে। টিকার এই কৌশল সিরিঞ্জ নিয়ে ভয় দূর করার পাশাপাশি টিকা বিতরণ ব্যবস্থার ক্ষেত্রেও সহায়ক হবে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ টিকার এই প্যাঁচ সংরক্ষণের জন্য শীতল তাপমাত্রার প্রয়োজন হবে না।

অস্ট্রেলীয় ও যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীদের দল যৌথভাবে এই প্যাঁচ আবিষ্কার করেছে। প্রতিটি প্যাঁচের আকার এক বর্গসেন্টিমিটার। এতে পাঁচ হাজারের বেশি ক্ষুদ্র ছিদ্র থাকবে। গবেষণা প্রতিবেদনের সহলেখক ও কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ডেভিড মুলার বলেন, ‘ছিদ্রগুলো এতটাই ক্ষুদ্র যে খালি চোখে দেখা যায় না। ’ তিনি জানান, ছোট একটি যন্ত্র ব্যবহার করে ওষুধের প্রলেপযুক্ত প্যাঁচ ত্বকের ওপর বসিয়ে দেওয়া হবে। তবে এটি লাগানোর সময় ত্বকে ঝাঁকুনি হতে পারে। গবেষকরা জানান, ইঁদুরের ওপর নতুন এই টিকার পরীক্ষা চালান তাঁরা।

কিছু ইঁদুরের শরীরে ওষুধযুক্ত প্যাঁচ দুই মিনিট করে লাগিয়ে রাখা হয়। আর কিছু ইঁদুরের শরীরে সিরিঞ্জের মাধ্যমে টিকা দেওয়া হয়। দেখা গেছে, যেসব ইঁদুরকে প্যাঁচ ব্যবহার করে দুই ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে, তাদের শরীরে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা