kalerkantho

বুধবার । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৮ ডিসেম্বর ২০২১। ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

পেগাসাস নিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

জাতীয় নিরাপত্তার নামে রাষ্ট্র যা খুশি করতে পারে না

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাতীয় নিরাপত্তার নামে রাষ্ট্র যা খুশি করতে পারে না

ইসরায়েলের তৈরি পেগাসাস স্পাইওয়্যারের মাধ্যমে রাজনীতিক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ওপর নজরদারির অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন ভারতের শীর্ষ আদালত। অভিযোগের বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের জবাবে আদালত সন্তুষ্ট নন জানিয়ে তিন সদস্যের এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি আর ভি রবীন্দ্রন এবং সাইবার বিশেষজ্ঞ অলোক যোশি ও সন্দীপ ওবেরয়ের সমন্বয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি আদালতের অধীনে থেকে অভিযোগের বিষয়ে অনুসন্ধান চালাবে। আট সপ্তাহ পর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন আদালতকে প্রতিবেদন দেবে এই তদন্ত কমিটি।

কেন্দ্রীয় সরকারকে তিরস্কার করে গতকাল বুধবার প্রধান বিচারপতি এন ভি রমন বলেন, পেগাসাস নিয়ে জবাবের জন্য কেন্দ্রকে যথেষ্ট সময় ও সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। তা সত্ত্বেও নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যায় ব্যর্থ কেন্দ্র। জাতীয় নিরাপত্তার যে অজুহাত কেন্দ্র দিচ্ছে, তা শীর্ষ আদালত সমর্থন করে না।

পেগাসাস মামলার শুনানিকালে প্রখ্যাত লেখক জর্জ অরওয়েলের উক্তি তুলে ধরে প্রধান বিচারপতি বলেন, কোনো কিছু গোপন রাখতে চাইলে তা নিজের কাছ থেকেও গোপন রাখা উচিত। একই সঙ্গে নিজের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে প্রধান বিচারপতি বলেন, শুধু সাংবাদিক নন, সব নাগরিকেরই গোপনীয়তা রক্ষা গুরুত্বপূর্ণ। বেশ কয়েকজন আবেদনকারী সরাসরি পেগাসাসের শিকার হয়েছেন। জাতীয় নিরাপত্তার দোহাই দিয়ে সরকার যা খুশি করতে পারে না। এ ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে কেন্দ্রকে আরো সতর্ক থাকতে হবে। সংবাদমাধ্যমের ওপর নজরদারির সম্ভাব্য প্রভাব তুলে ধরে প্রধান বিচারপতি বলেন, নজরদারির কারণে মানুষের স্বাধীনতা ও স্বাধীনতার চর্চা যে প্রভাবিত হয়, তা অস্বীকার করার উপায় নেই। সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং তাদের ভূমিকাও প্রভাবিত হয়।

পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে আড়ি পাতার ঘটনা ভারত ছাড়াও বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে আলোড়ন সৃষ্টি করে। এর বিচার চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল ভারতের সম্পাদকদের সংগঠন এডিটরস গিল্ড। এর আগে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক এন রান ও শশী কুমার এই মামলায় বিশেষ তদন্তদল গঠনের আবেদন জানিয়েছিলেন। অবশেষে গতকাল তদন্ত কমিটি গঠনের কথা জানালেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট।

 

 

 



সাতদিনের সেরা