kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজ মর্যাদা ত্যাগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজ মর্যাদা ত্যাগ

কোমুরোর সঙ্গে রাজকুমারী মাকো। ২০১৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর তোলা। ছবি : এএফপি

রাজকীয় মর্যাদা ত্যাগ করে কলেজজীবনের ভালোবাসার মানুষ কোমুরোকে বিয়ে করেছেন জাপানের রাজকুমারী মাকো। জাপানের আইন অনুযায়ী, রাজপরিবারের কোনো নারী সদস্য বাইরের সাধারণ পুরুষকে বিয়ে করলে তিনি রাজকীয় মর্যাদা হারান। রাজপরিবারে পুরুষ সদস্যদের ক্ষেত্রে এ নিয়ম প্রযোজ্য নয়।

জাপানে রাজকীয় বিয়ের যেসব আনুষ্ঠানিকতা অনুসরণ করা হয়, সেগুলোও পালন করেননি মাকো। রাজপদবি হারানোর পর ঐতিহ্য অনুযায়ী ১৩ লাখ মার্কিন ডলার পাওয়ার কথা মাকোর। তবে তিনি ওই পারিবারিক অর্থ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। ফলে জাপানি রাজপরিবারের তিনিই একমাত্র সদস্য, যিনি পদপদবি ও অর্থ ত্যাগ করার পাশাপাশি পুরোপুরি রাজকীয় সম্পর্ক ছিন্ন করলেন।

বিয়ে নিবন্ধন করার জন্য মাকো স্থানীয় সময় গতকাল সকাল ১০টায় তাঁর টোকিওর বাসভবন ছাড়েন। এর আগে মাকো তাঁর মা-বাবাকে সম্মান প্রদর্শন করেন। বাসভবন ছাড়ার আগে মাকো তাঁর ছোট বোনকে আলিঙ্গন করেন।

কয়েক বছর ধরে এই জুটির প্রেম-ভালোবাসা ও বিয়ের বিষয়টি জাপানের গণমাধ্যমে ব্যাপক প্রচার পেয়ে আসছে। বিয়ের পর মাকো ও কোমুরো যুক্তরাষ্ট্রে চলে যাবেন বলে জানা গেছে। কোমুরো একজন আইনজীবী। তিনি আইনজীবী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করেন।

এদিকে মাকো ও কোমুরোর বিয়ের প্রতিবাদে গতকাল বিক্ষোভও করা হয়েছে। পরে এক সংবাদ সম্মেলনে মাকো বলেন, “আমার বিয়ের কারণে কারো যদি কোনো সমস্যা হয়ে থাকে তার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী এবং আমি তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞ, যাঁরা আমাকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন।” কোমুরো বলেন, তিনি মাকোকে ভালোবাসেন এবং তাঁর সঙ্গে জীবন কাটাতে চান। 

ভালোবাসার মানুষ কোমুরোকে বিয়ের জন্য রাজকীয় মর্যাদা ছাড়ার ঘোষণা আগেই দিয়েছিলেন মাকো। বহুল আলোচিত এই বিয়ের আগে গত শনিবার মাকো তাঁর ৩০তম জন্মদিন উদযাপন করেন। রাজকীয় পদবি হারানোর আগে জাপানি রাজকুমারী হিসেবে এটাই ছিল তাঁর শেষ জন্মদিন উদযাপন।

২০১২ সালে মাকো ও কোমুরোর প্রথম দেখা হয়। তখন তাঁরা টোকিওতে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিশ্চিয়ান ইউনিভার্সিটিতে পড়তেন। একসঙ্গে পড়াশোনার সুবাদে তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০১৭ সালে তাঁদের বাগদান হয়। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।



সাতদিনের সেরা