kalerkantho

শনিবার । ৩১ আশ্বিন ১৪২৮। ১৬ অক্টোবর ২০২১। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে গোপালগঞ্জে উৎসব

দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা

গোপালগঞ্জ ও কোটালীপাড়া প্রতিনিধি   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৬ মিনিটে



প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে গোপালগঞ্জে উৎসব

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল গোপালগঞ্জে কেক কাটা হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়ার মানুষের কাছে গতকাল মঙ্গলবার ছিল আনন্দের দিন। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন ঘিরে দিনভর ছিল উৎসবের আমেজ। আনন্দঘন পরিবেশে কেক কেটে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করা হয়। জেলা-উপজেলা ও তৃণমূল পর্যায়ে দিনভর আলোচনাসভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয়ে শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

সকালে জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে গোপালগঞ্জ শহরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা, দোয়া মাহফিল ও কেক কাটা হয়।

আলোচনাসভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে আমরা অচিরেই উন্নত দেশে পরিণত হব। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ২১ আগস্ট ভয়ংকর গ্রেনেড হামলা করে তাঁকে হত্যা করতে চেয়েছিল; কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমতে সেদিন তিনি প্রাণে বেঁচে যান। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করি, তিনি যেন দীর্ঘ জীবন লাভ করেন।’

সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু, সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম মিটু, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম নজরুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি জি এম সাহাবুদ্দিন আজম, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নিউটন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান পিয়াল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, পৌর মেয়রসহ দলীয় নেতাকর্মীরা। পরে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের রুহের মাগফিরাত এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তাঁরা। এরপর দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করা হয়।

সভায় টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল বাশার খায়ের বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার দেশের উন্নয়নে কাজ করছে। জনগণ কিভাবে ভালো থাকবে, সেই চিন্তা করেন। করোনাকালে বিভিন্ন দেশ থেকে টিকা সংগ্রহ করে তা বিনা মূল্যে জনগণকে দিচ্ছেন। তিনি চান সবাইকে ভালো রাখতে। আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ রাখে, ভালো রাখে—এই  প্রার্থনা করি।’

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল শেখ বলেন, ‘শেখ হাসিনা আমাদের গর্ব। আমাদের অহংকার। তিনি একজন সফল রাষ্ট্রনায়ক। শেখ হাসিনা না থাকলে বাংলাদেশ আগামী ৫০ বছরেও মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতো না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে প্রধানমন্ত্রী দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আমরা এই নেতার জন্মশতবর্ষ পালন করতে চাই। আল্লাহ যেন তাঁকে দীর্ঘায়ু দান করেন।’

এ ছাড়া টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান বিশ্বাস, পৌর মেয়র শেখ তোজাম্মেল হক টুটুল, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ফোরকান বিশ্বাসসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাসভা শেষে জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়। এর আগে ছাত্রলীগের আয়োজনে একটি আনন্দ মিছিল শেখ লুত্ফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজ চত্বর থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

আলোচনাসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাস বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্য আমরা বাংলাদেশ পেয়েছি। তাঁর সুযোগ্যা কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন একটি আধুনিক বাংলাদেশ।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আয়নাল হোসেন শেখ বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন মানেই কোটালীপাড়াবাসীর কাছে অন্য রকম একটি আনন্দের দিন। শুধু আমরা দলীয় লোকজনই এই দিনটি পালন করি না, বিভিন্ন  সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ উপজেলার সর্বস্তরের মানুষ এই দিনটি পালন করে।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কুশলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম বাদল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের আশা ও ভরসার বাতিঘর। তিনি আমাদের শেষ আশ্রয়স্থল। তাঁর জন্মদিন মানেই আমাদের কাছে ঈদ-পূজা-পার্বণের মতো একটি আনন্দের দিন।’

এসব কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মনিন্দ্রনাথ হালদার, এস এম হুমায়ুন কবির, মুজিবুর রহমান হাওলাদার, গোলাম কিবরিয়া দাড়িয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচ এম অহিদুল ইসলাম, হাজি মো. কামাল হোসেন শেখ, আমিনুজ্জামান খান মিলন, সাংগঠনিক সম্পাদক মতিয়ার রহমান হাজরা, রুহুল আমিন খান, প্রচার সম্পাদক হান্নান শেখ, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সুমন হোসেন বাচ্চু, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক বাবলু হাজরা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান মুন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি চৌধুরী সেলিম আহম্মেদ ছোটন প্রমুখ।

এ ছাড়া উপজেলার শুয়াগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে দলীয় কার্যালয়ে, আমতলী ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এবং রামশীল ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আলোচনাসভা ও কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করা হয়। এসব অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান খোকন বালা, হান্নান শেখ, শুয়াগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক যজ্ঞেশ্বর বৈদ্য অনুপ বক্তব্য দেন।

এরপর দলীয় নেতাকর্মীরা অগ্রণী ব্যাংকের পরিচালক খন্দকার মঞ্জুরুল হক লাভলুর পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদ হলরুমে আয়োজিত কম্পিউটার ও সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

এ ছাড়া উপজেলা কৃষি অফিস ও কলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ আলাদাভাবে ৭৫টি করে ফলদ, বনজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপণ করে। উপজেলা পরিষদ চত্বরে বৃক্ষ রোপণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ এ দুটি কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নিটুল রায়, উপজেলা প্রকৌশলী দেবাশীষ বাগচী, কলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝা উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে কাশিয়ানী ও মুকসুদপুর উপজেলায়ও দিনভর নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

 



সাতদিনের সেরা