kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

চকরিয়ায় কৃষক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চকরিয়ায় কৃষক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

প্রতীকী ছবি

কক্সবাজারের চকরিয়ায় কৃষক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গত রবিবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ঘোনারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত কৃষক লীগ নেতার নাম সরওয়ার কামাল (৩৫)। তিনি ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মালুমঘাটের মিঠাছড়ি এলাকার মৃত ছৈয়দ নূর সিকদারের ছেলে। বিয়ের পর তিনি পাশের ইউনিয়ন ফাঁসিয়াখালীর ঘোনারপাড়ায় শ্বশুরের জায়গায় বাড়ি করে বসবাস করছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে বসবাসের কারণে তিনি ওই ইউনিয়নের কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান। একই সঙ্গে তিনি কক্সবাজার আর্টস ক্লাবের সদস্য এবং পেশাদার আর্টিস্ট।

ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মহিউদ্দিন কালের কণ্ঠকে জানান, নিহত সরওয়ার কামালের স্ত্রী কাজল আক্তার সন্তানদের নিয়ে কোনাখালী ইউনিয়নে যান এক আত্মীয়ের বিয়েতে। এ কারণে সরওয়ার একাই ছিলেন বাড়িতে। রবিবার রাত আড়াইটার দিকে একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত ওই বাড়িতে গিয়ে সরওয়ারকে ডেকে ঘুম থেকে তুলে দরজা খুলতে বলে। বিপদ বুঝতে পেরে তিনি সাদেক নামের এক প্রতিবেশীকে ফোন করেন। কিন্তু সাদেক কথা বলার সুযোগ না পেলেও হৈচৈ শুনতে পান। সাদেক তাঁর বাড়ির ছাদে উঠে দেখতে পান সরওয়ারের বাড়ির সামনে কয়েকজন ব্যক্তি অবস্থান করছে। এরপর ভয়ে সাদেক বাড়িতে ঢুকে যান। পরে তাঁকে ফোন করে বিষয়টি জানান। কিছুক্ষণ পর আশপাশের কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে সরওয়ারের বাড়িতে গিয়ে দেখতে পান বুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাঁর মৃতদেহ উঠানে পড়ে রয়েছে।

চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের কালের কণ্ঠকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্বশত্রুতার জের ধরেই পরিকল্পিতভাবে সরওয়ারকে হত্যা করা হয়েছে। বাড়ির কোনো মালপত্র নেয়নি দুর্বৃত্তরা। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান ও চকরিয়া সার্কেলের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার মো. তফিকুল আলম। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার বিকেল পর্যন্ত নিহত সরওয়ারের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়নি।

 



সাতদিনের সেরা