kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

নাইট্যাগের সঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বৈঠক

এখনই টিকা পাচ্ছে না ছোটরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এখনই টিকা পাচ্ছে না ছোটরা

১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে গত শনিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানালেও গতকাল রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এখনো এ বিষয়ে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আলাপ-আলোচনা চলছে। জাতীয় কারিগরি কমিটির পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের সংখ্যা অনুপাতে টিকা সংগ্রহ, তাদের নিবন্ধনপ্রক্রিয়া কী হবে সেটা ঠিক করাসহ আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে এখনো সুরাহা হয়নি। ফলে টিকা দেওয়ার দিনক্ষণ ঠিক করা নিয়ে অনেক জটিলতা রয়ে গেছে বলেও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একাধিক সূত্র থেকে জানানো হয়েছে।

এমনকি গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বুলেটিনেও এ অনিশ্চয়তার কথা জানানো হয়। পাশাপাশি গতকাল স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে নাইট্যাগের (ন্যাশনাল ইম্যুনাইজেশন টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজারি গ্রুপ) বৈঠকেও ১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকার চেয়ে বয়স্কদের দ্রুত সময়ের মধ্যে সবার টিকা নিশ্চিত করার ওপরই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে।

নাইট্যাগের একাধিক সদস্য জানান, বৈঠকে মূলত এখন হাতে যে টিকা আছে সেগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীকে (৪০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে যাঁরা বাকি আছেন) টিকার আওতায় আনার কথা বলা হয়েছে। বৈঠকে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে বলা হয়েছে—হাতে টিকা পাওয়া গেলে তখন বিষয়টি যাতে বাস্তবায়ন করা যায়, সে জন্য পরিকল্পনা করে রাখা হচ্ছে। এ ছাড়া এখন পর্যন্ত ফাইজারের টিকাই ১৮ বছরের নিচের বয়সীদের দেওয়ার অনুমোদন আছে, কিন্তু দেশে এখন এই টিকার মজুদ নেই। এ ছাড়া ফাইজারের টিকা বাংলাদেশে আসছে কোভ্যাক্স সুবিধার মাধ্যমে। এ ক্ষেত্রে কোভ্যাক্সের শর্ত হচ্ছে আগে বয়স্ক ও ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীকে টিকা দিতে হবে। ফলে বয়স্কদের টিকা না দিয়ে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দিতে গেলে পরবর্তী সময়ে অন্য টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে কোভ্যাক্স থেকে জটিলতা তৈরি হতে পারে। সেদিকেও নজর রাখা হচ্ছে।

এ ছাড়া গণটিকার আদলে বিশেষ ক্যাম্পাইনের আওতায় প্রতি মাসে দুই কোটি ডোজ করে টিকার ব্যবস্থা করার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম গতকাল বিকেলে ফেসবুক লাইভে জানান। এ ছাড়া তিনি বিশেষ ক্যাম্পেইনের জন্য মাঠ পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম আগের চেয়ে ঢেলে সাজানোর কথা জানান। তিনি বলেন, ‘১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকা দেওয়ার বিষয়টি সংবেদনশীল। ফলে এটি নিয়ে আমরা পর্যালোচনা করছি, সিদ্ধান্ত হলে আমরা জানাব।’

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ও পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম বুলেটিনে বলেন, ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার ব্যাপারে এখনো আলোচনা  চলছে। কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বা দিনক্ষণ নির্ধারণের মতো কিছু হয়নি। হয়তো জাতীয় পরামর্শক কমিটিসহ অন্যান্য সবার পরামর্শ নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিদ্ধান্ত নেবে।

 



সাতদিনের সেরা