kalerkantho

বুধবার । ৭ আশ্বিন ১৪২৮। ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৪ সফর ১৪৪৩

ধর্ম অবমাননার দায়

ইউরোপে ‘জিএসপি প্লাস’ সুবিধা হারাচ্ছে পাকিস্তান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউরোপে ‘জিএসপি প্লাস’ সুবিধা হারাচ্ছে পাকিস্তান

পাকিস্তানের পণ্যের শুল্কমুক্ত রপ্তানি সুবিধা ‘জিএসপি প্লাস’ প্রত্যাহার করছে ২৭ দেশের জোট ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। সোমবার ইইউ পার্লামেন্টে বলা হয়, ধর্ম অবমাননার দায়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বাণিজ্য সুবিধা প্রত্যাহারের এই ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে পার্লামেন্টের সব সদস্যই একমত।

বিতর্কিত ব্লাসফেমি আইনের কারণে গত এপ্রিলে পাকিস্তানের জিএসপি প্লাস সুবিধা প্রত্যাহারের কথা ওঠে। তখন এ ব্যাপারে যৌথ একটি উদ্যোগ নেওয়া হয়। ব্লাসফেমি আইন লঙ্ঘন রোধে আরো কার্যকর ব্যবস্থা নিতে পাকিস্তানের প্রতি আবারও আহ্বান জানানো হয়। এ ব্যাপারে আইনের প্রয়োজনীয় সংশোধনীর কথা বলা হয়। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান ইইউর দেশগুলোতে জিএসপি প্লাস সুবিধা হারালে লাভবান হবে বাংলাদেশ। বিশেষ করে তৈরি পোশাকের হোমটেক্সটাইল, টেরিটাওয়েল ও কিছু কিছু পোশাক পণ্যে বাড়তি সুবিধা পাওয়া যাবে।

জানতে চাইলে বিকেএমইএর প্রথম সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, পাকিস্তানের শুল্কমুক্ত সুবিধা প্রত্যাহার হলে কিছু কিছু পোশাক পণ্য রপ্তানি প্রতিযোগিতায় একটা সুবিধা পাওয়া যাবে। তবে বড় সুবিধা পাবে হোমটেক্সটাইল, টেরিটাওয়েল। কারণ এগুলোই পাকিস্তানের মূল রপ্তানি পণ্য। তবে পোশাক ছাড়াও বাংলাদেশের অন্যান্য রপ্তানি পণ্যও এতে বিশেষ সুবিধা পাবে।

জানতে চাইলে ট্যারিফ কমিশনের সদস্য মোস্তফা আবিদ বলেন, ‘পাকিস্তানের জিএসপি সুবিধা প্রত্যাহারের কথা অনেক দিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত হয়তো প্রত্যাহার হতে যাচ্ছে।’ তবে এতে বাংলাদেশ যে খুব বেশি লাভবান হবে, তা মনে করেন না তিনি। মোস্তফা আবিদ বলেন, ১০ বছর আগে যখন পাকিস্তানকে এ সুবিধা দেওয়া হয়, তখন ঘাঁটাঘাঁটি করে দেখা যায়, এতে বাংলাদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। তার ভিত্তিতে বলা যায়, এখন এই সুবিধা প্রত্যাহার হলেও বাংলাদেশের খুব বেশি কিছু পাওয়ার থাকবে না। সামান্য কিছু সুবিধা হয়তো হবে। কারণ পাকিস্তান যে সুবিধা হারাবে, তার অংশ শুধু বাংলাদেশেই আসবে ব্যাপারটা তা নয়; প্রতিযোগী সব দেশেই যাবে।



সাতদিনের সেরা