kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

সবিশেষ

১৫ হাজার বছরের পুরনো ভাইরাস!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১৫ হাজার বছরের পুরনো ভাইরাস!

১৫ হাজার বছরের পুরনো ভাইরাসের হদিস পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। চীনের তিব্বতে হিমবাহের নিচে দুটি বরফের নমুনার মধ্যে এগুলোর খোঁজ মেলে। বরফে জমে থাকার কারণে মুছে যায়নি ভাইরাসের অস্তিত্ব। মাইক্রোবায়োমি জার্নালে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। এযাবৎ আবিষ্কৃত ভাইরাসের সঙ্গে নতুন এই ভাইরাসের মিল নেই। কিভাবে ভাইরাসের বিবর্তন হয়েছে তা বোঝার জন্য এই ভাইরাসের তথ্য অত্যন্ত কার্যকরী বলে মনে করছেন গবেষকরা। গবেষকদলের প্রধান অণুজীববিজ্ঞানী জিপিং জং জানান, বহুদিন ধরে এই হিমবাহ জমে ছিল। হিমবাহের মধ্যে একাধিক ভাইরাস রয়েছে। ঘাস, ধুলার সঙ্গে মিশে ছিল একাধিক ভাইরাস। তিনি আরো বলেন, ‘এই ভাইরাসগুলো থেকে অতীতের পরিবেশ, সেই সময় ভাইরাসের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ইত্যাদির বিষয়ে জানা সম্ভব।’ এই হিমবাহ থেকে পাওয়া গেছে মোট ৩৩টি ভাইরাস। এর মধ্যে চারটি ভাইরাসকে চিহ্নিত করা গেছে। কিন্তু ২৮টি ভাইরাসের বিষয়ে জানা নেই গবেষকদেরও। প্রতিটি ভাইরাসই বরফে থাকার দরুন নষ্ট হয়নি। বিজ্ঞানীদের দাবি, এই ভাইরাসগুলো একসময় পৃথিবীতে ছড়িয়ে ছিল—এমনটাই মনে করছে গবেষকদের একাংশ। তবে ভাইরাসগুলো অত্যন্ত কম সংক্রামক এবং মাটিতেও পাওয়া গেছে। ওই গবেষক দলে অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির কয়েকজন পরিবেশ ও অণুজীববিজ্ঞানী। তিনি বলেন, ‘কভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতি আমাদের বলছে যে আণুবিক্ষণিক জীব নিয়ে সতর্ক হওয়ার বিষয়ে আরো গুরুত্ব দিতে হবে। ভাইরাস, অণুজীবসহ বায়ুমণ্ডলের বহু উপাদান যুগ যুগ ধরে সংরক্ষণ করে আসছে বরফ।’ স্টেট ইউনিভার্সিটির আর্থ সায়েন্সের অধ্যাপক লোনি থম্পসন বলেন, ‘বরফ হচ্ছে জমাট আর্কাইভ।’ তিনি জানান, গবেষণায় তাঁরা এ-ও দেখেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে হিমবাহগুলো ধারণার চেয়েও দ্রুতগতিতে গলছে। সূত্র : সিএনএন।