kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

আ. লীগ নেতাকে অপহরণের পর হত্যা বান্দরবানে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান    

২০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আ. লীগ নেতাকে অপহরণের পর হত্যা বান্দরবানে

বান্দরবান সদর উপজেলার কেয়ামলং পাড়ায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা অং ক্য থোয়াই (৪২) নামের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতাকে অপহরণের পর হত্যা করেছে। নিহত অং ক্য থোয়াই একজন পল্লী চিকিৎসক। কেয়ামলং বৌদ্ধ বিহারসংলগ্ন বাজারে তাঁর ওষুধের দোকান রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার সন্ধ্যা ৭টায় এক দল সন্ত্রাসী অং ক্য থোয়াইর মালিকানাধীন ফার্মেসিতে ঢুকে অস্ত্র উঁচিয়ে তাঁকে একটি মাহিন্দ্রা ট্যাক্সিতে উঠিয়ে নিয়ে যায়। গতকাল সকালে অপহরণস্থল থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে বাকীছড়ার একটি পরিত্যক্ত দোকানে তাঁর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা।

অং ক্য থোয়াইসহ গত এক মাসে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের হাতে দুজন খুন হলেন। গত ১৮ জুন খুন হন রোয়াংছড়ি উপজেলার তুলাছড়ি এলাকার নওমুসলিম ও স্থানীয় মসজিদের ইমাম মো. ওমর ফারুক।

বান্দরবান সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, স্থানীয় জনগণ সূত্রে খবর পেয়ে জেলা সদর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে রাস্তার পাশের একটি পরিত্যক্ত দোকান থেকে অং ক্য থোয়াইয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, ভারী কোনো বস্তুর আঘাতে মাথা থেঁতলে দিয়ে তাঁকে হত্যা করা হতে পারে।

ওসি জানান, বাকীছড়া থেকে উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য তাঁর মরদেহ বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ব্যাপারে বান্দরবান সদর থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা ধারণা করছে, জমিসংক্রান্ত কোনো বিরোধের কারণে তাঁকে হত্যা করা হতে পারে।