kalerkantho

শনিবার । ১০ আশ্বিন ১৪২৮। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৭ সফর ১৪৪৩

অষ্টম শ্রেণি পাস করেই ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অষ্টম শ্রেণি পাস করেই ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’

ডা. মুহাম্মদ খোরশেদ আলম একজন ‘বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক’। ভিজিটিং কার্ডের তথ্য অনুযায়ী, তিনি একাধারে এমবিবিএস (ডিএমসি), এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউরোলজি), স্নায়ুরোগ, ডায়াবেটিস ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ। প্রায় সর্বরোগের এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মানবিকও বটে। চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবর শাহ থানায় নিম্নবিত্তদের বসতিপূর্ণ এলাকায় রোগী দেখেন ৫০০ টাকা ফির বিনিময়ে। তাঁর যত ডিগ্রি, চাইলে হাজার টাকাও নিতে পারতেন।

এমন ‘মানবিক ডাক্তার’ খোরশেদ আলমকে গতকাল গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর ডাক্তারের কাছ থেকে পাওয়া গেল ভিজিটিং কার্ড, প্যাড, সিল এবং একগাদা সনদ, যে সনদের সবই জাল বলে কথিত ডাক্তার নিজেই স্বীকার করেছেন।

খোরশেদ (৪২) চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার বাসিন্দা। ‘ডাক্তারি পেশার’ সুবাদে তিনি পাহাড়তলী থানার সরাইপাড়া এলাকায় বাস করেন।

খোরশেদ অবশ্য এর আগে দুই দফা ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারে শাস্তির মুখোমুখি হয়েছিলেন। কিন্তু দুই দফা কারাবাসের পরও তিনি পাল্টাননি।

আকবর শাহ থানার ওসি মো. জহির হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খোরশেদ আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি নিজকে বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডার পদে কর্মরত বলে ভুয়া পরিচয় দেন। তিনি অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। একসময় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওয়ার্ড বয় হিসেবে কাজ করতেন।

 

 



সাতদিনের সেরা