kalerkantho

সোমবার । ৫ আশ্বিন ১৪২৮। ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১২ সফর ১৪৪৩

র‌্যাবের ডিজি বললেন

সাইবার অপরাধীদের ধরা হবে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাইবার অপরাধীদের ধরা হবে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করে

র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেছেন, অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মাদক কারবারসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ কর্মকাণ্ড ঘটছে। এ ধরনের অপরাধ বন্ধ করতে যে সক্ষমতা ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন, তা বাড়ানোর চেষ্টা করছে র‌্যাব। আগামী দিনে নিত্যনতুন প্রযুক্তি এলে সেটি ব্যবহার করে র‌্যাব সাইবারজগতের অপরাধীদের ধরবে। গতকাল মঙ্গলবার র‌্যাব সদর দপ্তরে সাম্প্রতিক সময়ে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে র‌্যাবের ডিজি এসব কথা বলেন। 

সম্প্রতি এলএসডি, ডিএমটি, আইসসহ বেশ কিছু নতুন মাদকের কারবার চলছে অনলাইনে। সাইবারজগতে কিশোর গ্যাং, নারীপাচার, জুয়াসহ অন্য অপরাধও চলছে। র‌্যাবসহ বিভিন্ন বাহিনীর অভিযানে এসব চক্রের সদস্যরা ধরা পড়লে তথ্য মিলেছে কয়েক বছর ধরে চলছিল এই কারবার। এ ধরনের মাদক কারবার প্রতিরোধে র‌্যাব আগামী দিনে কী পদক্ষেপ নিচ্ছে—কালের কণ্ঠ’র প্রতিবেদকের এমন প্রশ্নের জবাবে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, ‘অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অপরাধ কর্মকাণ্ড যেন না করতে পারে সে জন্য অভ্যন্তরীণভাবে প্রতিনিয়ত আমাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করছি। সাইবার প্যাট্রলিংয়ের জন্য আমাদের যে সক্ষমতা ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন, তা বৃদ্ধি করে চলছি। তাদের কার্যক্রমের ওপর আমাদের নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। আগামী দিনে নিত্যনতুন কোনো প্রযুক্তি এলে সেটির সঙ্গে আমরা তাল মিলিয়ে কাজ করব।’

জঙ্গি সংগঠনগুলোর বড় ধরনের নাশকতা চালানোর সামর্থ্য নেই উল্লেখ করে র‌্যাবের ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমরা যেভাবে কার্যক্রম চালাচ্ছি, এতে জঙ্গিবাদের স্থান বাংলাদেশে হবে না। তাদের থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি। এই মুহূর্তে আমাদের গোয়েন্দা তথ্যে জানা যায়, জঙ্গিদের আক্রমণাত্মক হওয়ার সামর্থ্য নেই।’

কিশোর গ্যাং প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কিশোর অপরাধ উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তারা হত্যাকাণ্ডের মতো হিংস্র ও নৃশংস অপরাধেও জড়িয়ে পড়ছে। এ প্রজন্মকে রক্ষা করতে এখনই ‘কিশোর গ্যাং’ কালচারের লাগাম টেনে ধরা দরকার। র‌্যাব ‘কিশোর গ্যাং’ নামক অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে জোরালো অভিযান পরিচালনা করছে।

র‌্যাবের ডিজি ভেজাল পণ্য, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত চলছে জানিয়ে বলেন, করোনা অতিমারির এ সময়ে ‘লকডাউন’ নিশ্চিত করার পাশাপাশি র‌্যাব ভেজাল পণ্য, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছে।



সাতদিনের সেরা