kalerkantho

শুক্রবার । ২২ শ্রাবণ ১৪২৮। ৬ আগস্ট ২০২১। ২৬ জিলহজ ১৪৪২

সবিশেষ

এলো পকেট ভেন্টিলেটর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এলো পকেট ভেন্টিলেটর

করোনা ঠেকাতে নানা রকম মাস্ক, ভেন্টিলেটর বানিয়েছেন অনেকেই। তবে এবার তৈরি হলো বিশেষ এক ধরনের ভেন্টিলেটর, যা রাখা যাবে পকেটেই। মাস্কের সঙ্গে যুক্ত থাকবে ভেন্টিলেটরের একটি অংশ। একদিকে যেমন বাতাসে ভেসে থাকা জীবাণু ছেঁকে বিশুদ্ধ অক্সিজেন ঢোকাবে শরীরে, তেমনি অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাচ্ছে যে রোগীর, শ্বাসকষ্ট শুরু হচ্ছে, তাদের জন্য প্রাণবায়ু সরবরাহ করবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অক্সিজেন সিলিন্ডার বা কনসেনট্রেটর হাতের কাছে না থাকলে এই পকেট ভেন্টিলেটরই প্রাণ বাঁচাতে সাহায্য করবে। এই যন্ত্র উদ্ভাবন করেছেন কলকাতার বিজ্ঞানী রমেন্দ্র লাল মুখোপাধ্যায়। তাঁর কথায়, ‘আমার নিজেরও করোনা হয়েছিল। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ৮২-তে নেমেছিল। তখনই এ ধরনের পকেট ভেন্টিলেটর বানানোর ভাবনা মাথায় আসে। মেডিক্যাল অক্সিজেন নিয়ে এত সমস্যা হচ্ছে, রোগীর তুলনায় জোগানও কম। সেদিক থেকে পকেট ভেন্টিলেটর কিছুটা হলেও মুহূর্ষু রোগীর শ্বাস ধরে রাখবে। শ্বাসকষ্টে ছটফট করতে হবে না রোগীকে।’

প্রযুক্তিগত দিক থেকেও এই ভেন্টিলেটর বানানো হয়েছে সহজ উপায়ে। রমেন্দ্র জানিয়েছেন, এই ভেন্টিলেটরের দুটি অংশ আছে। একটি থাকবে পকেটে, অন্যটি জোড়া থাকবে মাস্কের সঙ্গে। পকেটে যে অংশটা থাকবে সেটি চার্জ দিয়ে রাখতে হবে। চলবে ব্যাটারিতে। এই অংশে আছে একটি সুইচ, যা অন বা অফ করে যন্ত্রটি চালু বা বন্ধ করা যাবে, চার্জারের তার লাগানোর জায়গা (মোবাইল চার্জারের মতোই পয়েন্ট আছে) এবং একটি নব যা ঘুরিয়ে অক্সিজেনের মাত্রা বাড়ানো বা কমানো যাবে।

ভেন্টিলেটরের অন্য যে অংশটি মাস্কের সঙ্গে জোড়া থাকবে সেটিরই আসল কাজ। ওই যন্ত্রে রয়েছে একাধিক ফিল্টার। একটি অংশ বাতাস থেকে বিশুদ্ধ অক্সিজেন ছেঁকে নেবে। হাওয়ার সূক্ষ্ম কণা বা অ্যারোসলে ভাইরাস থাকলেও সেটা ছেঁকে নেওয়ার ক্ষমতা আছে এই ফিল্টারের। তা ছাড়া বাতাসে ধুলোবালি ও অন্যান্য জীবাণু থাকলেও তা ছাঁকনির মতো শুষে নেবে এই ফিল্টার। বিশুদ্ধ অক্সিজেন পাঠাবে ভেতরে। কাজ এখানেই শেষ নয়। প্রথম ধাপের ফিল্টারের পরও যদি কোনো জীবাণু থেকে যায় সেটা নিষ্ক্রিয় হবে এই যন্ত্রে লাগানো ইউভি (আলট্রাভায়োলেট) ফিল্টারে। এই ইউভি ফিল্টার করোনাভাইরাস বা যেকোনো ধরনের জীবাণু নিষ্ক্রিয় করে দিতে পারবে। এর মানে ভেন্টিলেটর দিয়ে পরিষ্কার, বিশুদ্ধ অক্সিজেনই ঢুকবে শরীরে। সূত্র : দ্য ওয়াল।



সাতদিনের সেরা