kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনে বাংলাদেশ

মহামারির মধ্যেও সাম্প্রদায়িক সহিংসতা, হুমকি

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মহামারির মধ্যেও সাম্প্রদায়িক সহিংসতা, হুমকি

গত বছর কভিড মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের ওপর সাম্প্রদায়িক সহিংসতা এবং হুমকি দেওয়ার তথ্য তুলে ধরা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিবেদনে। গত বুধবার রাতে প্রকাশিত ‘২০২০ সালে আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা, মানবাধিকার সংগঠনের বরাত দিয়ে ওই তথ্য তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, হিন্দু ও ইসলাম ধর্ম থেকে খ্রিস্ট ধর্ম গ্রহণকারীদের হয়রানি, শারীরিক সহিংসতা ও সামাজিকভাবে একঘরে করার সাম্প্রদায়িক হুমকি দেওয়ার তথ্য অব্যাহতভাবে জানাচ্ছে ক্রিশ্চিয়ান ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ও অন্য মানবাধিকার এনজিওগুলো। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ বলেছে, বছরজুড়ে এমনকি কভিড-১৯ মহামারির মধ্যে সংখ্যালঘুদের ওপর সাম্প্রদায়িক সহিংসতা চলেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনের বাংলাদেশ অংশে বলা হয়েছে, সংবিধানে বাংলাদেশে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম হলেও ধর্মনিরপেক্ষতা নীতি অনুসরণ করা হয়। সংবিধানে সব ধর্মের লোকদের সমান সুযোগ দেওয়ার পাশাপাশি ধর্মীয় বৈষম্যকে নিরুৎসাহী করা হয়েছে। ২০১৬ সালে একজন হিন্দু পুরোহিতকে হত্যার দায়ে দ্রুত বিচার আদালত নিষিদ্ধ জঙ্গি গোষ্ঠীর চার সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে খুতবা দিতে মসজিদে ইমামদের দিকনির্দেশনা দিচ্ছে সরকার। হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান, এমনকি অনেক সময় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্যরা তাদের জমি থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুতি ঠেকাতে সরকার অকার্যকর ভূমিকা পালন করেছে বলে অভিযোগ করেছে। তবে সরকার ধর্মীয় স্থাপনা, উৎসব এবং হামলার লক্ষ্য হতে পারে এমন অনুষ্ঠানে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্য নিয়োগ করেছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উৎসবের কারণে নির্বাচন কমিশন স্থানীয় একটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করেছে।

গত বছর অক্টোবর মাসে পবিত্র কুরআন অবমাননার গুজবে লালমনিরহাটে একজন মুসলমানকে পিটিয়ে হত্যার পর মরদেহে আগুন দেওয়া হয়। গত বছর জুলাই মাসে গাজীপুরে একটি মাজারের বাইরে একজন ভক্তকে হত্যা করা হয়। হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতাদের তথ্য ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ফ্রান্সের শার্লে হেবদোতে মহানবীকে বিদ্রুপ করে কার্টুন প্রকাশকে সমর্থন করেছেন এমন গুজবের পরিপ্রেক্ষিতে কুমিল্লায় হিন্দু পরিবারগুলোর বাড়িঘরে আগুন দেওয়া হয়। এ সময় তাদের বাড়িঘরেও লুট হয়। বাংলাদেশে আশ্রিত মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের মানবিক সহায়তা অব্যাহত আছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ রয়েছে।