kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৮ রমজান ১৪৪২

সবিশেষ

পোষ মানাতে নয় সিংহের প্রজনন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পোষ মানাতে নয় সিংহের প্রজনন

শিকারের জন্য অথবা পর্যটকদের কাছে পোষা শাবক হিসেবে বিক্রির উদ্দেশ্যে সিংহের প্রজনন বন্ধ করতে পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সিংহ আটকে রেখে প্রজননের বিতর্কিত প্রবণতার ওপর দুই বছর ধরে চালানো একটি গবেষণা প্রকাশিত হওয়ার পর সরকার এই পদক্ষেপ নিল।

ওই গবেষণায় দেখা গেছে, এ ধরনের কর্মকাণ্ড সিংহ রক্ষায় নেওয়া উদ্যোগগুলোকে ঝুঁকিতে ফেলছে এবং বন্য প্রাণীর ক্ষতি করছে। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সুপারিশ গ্রহণ করে এ ব্যবস্থা নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার, যা হয়তো দেশটির পেশাদারি শিকার শিল্পের সংশ্লিষ্টদের বিক্ষুব্ধ করে তুলতে পারে।

দক্ষিণ আফ্রিকার পরিবেশমন্ত্রী বারবারা ক্রেসি বলেছেন, ‘আটকানো সিংহের প্রজননের ব্যাপারে বেশির ভাগ প্রতিবেদনেই যা বলা হয়েছে তাতে আমাদের অবশ্যই সিংহ ধরে প্রজনন বা লালন-পালন করা, তার মাধ্যমে এগুলোকে গৃহপালিত করে তোলার ব্যবস্থা বন্ধ করতে হবে। আমরা চাই না সিংহ আটকে প্রজনন করা, আটকানো সিংহ শিকার করা, সিংহ আটকে ব্যবহার এবং সেগুলোকে পোষ মানানো হোক।’

তবে তিনি জানিয়েছেন, বনে নিয়ন্ত্রিত সিংহ শিকার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে। দেশটির পর্যটনশিল্পে বড় আয়ের এটি একটি প্রধান মাধ্যম।

যে বিশেষজ্ঞ প্যানেলের পরামর্শে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সেটি সিংহ, চিতাবাঘ, গণ্ডার ও হাতি সম্পর্কিত নীতি এবং বিধি-বিধান পর্যালোচনা করার জন্য গঠন করা হয়েছে। গণ্ডারের শিং এবং হাতির দাঁতের ব্যবসা বন্ধ করতে আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের অন্যান্য দেশের সঙ্গে আলোচনা করার পরামর্শ দিয়েছে এই কমিটি।

ধারণা করা হয়, দক্ষিণ আফ্রিকায় আট হাজারের বেশি সিংহ আটক অবস্থায় রয়েছে, যেখানে বনে রয়েছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার সিংহ। সিংহ আটকে রেখে প্রজননকারীরা বলছেন, তাঁরা বরং এভাবে প্রজনন করার মাধ্যমে বুনো সিংহ রক্ষা করছেন। তবে সমালোচকরা বলেন, এটি খুবই নিষ্ঠুর এবং শোষণমূলক একটি ব্যবস্থা।

বন্যপ্রাণী রক্ষায় বৈশ্বিক দাতব্য সংস্থা ওয়ার্ল্ড অ্যানিম্যাল প্রটেকশন দক্ষিণ আফ্রিকার এই ঘোষণাকে ‘বন্যপ্রাণীর জন্য একটি বিজয়’ বলে বর্ণনা করেছে। সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা