kalerkantho

সোমবার । ১১ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৬ জুলাই ২০২১। ১৫ জিলহজ ১৪৪২

স্বাধীনতার ৫০ বছর

বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন হাসপাতালে বিশেষ ছাড়ে চিকিৎসাসেবা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন হাসপাতালে বিশেষ ছাড়ে চিকিৎসাসেবা

মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে কেরানীগঞ্জে বসুন্ধরা রিভারভিউ এলাকায় বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বিশেষ ছাড়ে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। গত ১৬ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই বিশেষ ছাড় আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত চলবে। চোখের ছানি অপারেশন করা হচ্ছে বিনা মূল্যে। অন্য সব খরচ অন্য সময়ের চেয়ে কম রাখা হচ্ছে। এ ছাড়া সিজারিয়ান অপারেশন ও চোখের ফ্যাকো অপারেশন বাদে অন্য সব অপারেশন করা হচ্ছে অর্ধেক খরচে। হার্নিয়া, অ্যাপেন্ডিসাইটিস, গাইনি অপারেশন, জরায়ু টিউমার, টনসিলেকটমি, সুন্নতে খতনাসহ যেকোনো টিউমার অপারেশন, পাইলস অপারেশন, অর্থোপেডিকসের যেকোনো অপারেশন করা হচ্ছে।

এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টা থাকছে অ্যাম্বুল্যান্স সেবা। অ্যাম্বুল্যান্সের জন্য যোগাযোগ করতে হবে  ০১৭১৩৪৮৮৪১৪ নাম্বারে। পাশাপাশি অন্যান্য সেবার জন্য হটলাইন নাম্বার ০১৭১৩৪৮৮৪১৫ ও ০১৭১৩৪৮৮৪১৬ ব্যবহার করা যাবে।

ওই হাসপাতাল সূত্র জানায়, দেশের শীর্ষ শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ গরিব মানুষের জন্য উন্নত ও আধুনিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে এই বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছে। হাসপাতালটিতে রয়েছে ৫০০ বেডের সার্বিক ব্যবস্থাপনা। এর সঙ্গে চালু করা হচ্ছে বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডিক্যাল কলেজ।

হাসপাতালটির ব্যবস্থাপক মো. সিদ্দিকুর রহমান জানান, ২০১২ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্ঠিত হয় বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন হাসপাতাল। বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান সাহেবের মহানুভবতায় কোনো লভ্যাংশ ছাড়াই বসুন্ধরা গ্রুপ এই প্রতিষ্ঠানের অংশীদার হয়েছে। বসুন্ধরা গ্রুপ এই হাসপাতাল কমপ্লেক্সের জমিসহ ভবন এবং কলেজ কমপ্লেক্স করে দিয়েছে। বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে কম খরচে রোগীদের সেবা দেওয়া হয়। এই খরচ শুধু হাসপাতালের ব্যয়ভার বহন করার জন্যই।

বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্র জানায়, জমি, ভবন, যন্ত্রপাতিসহ সব অবকাঠামোগত ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে। এই খাতে প্রাথমিকভাবে বসুন্ধরা গ্রুপের বিনিয়োগ ছিল ২০০ কোটি টাকারও বেশি। পরে ধারাবাহিকভাবেই বিনিয়োগ অব্যাহত রয়েছে।

ওই কর্মকর্তা জানান, প্রায় ১০০ জন খ্যাতিমান বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সার্বক্ষণিক চিকিৎসাসেবা পাচ্ছে এই হাসপাতালে আসা বিভিন্ন ধরনের রোগী। চিকিৎসকদের মধ্যে রয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ও বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. রুহুল আমিন, খ্যাতিমান প্রসূতি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. আরিফা আক্তার জাহান সোমা, যিনি বন্ধ্যত্ব নিবারণেও খ্যাতি ছড়িয়েছেন এরই মধ্যে। বিশেষজ্ঞ ল্যাপারোস্কোপিক সার্জন হিসেবে রয়েছেন ডা. জাকির হোসেন, প্যাথলজি বিভাগে আছেন ট্রান্সফিউশন মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মোস্তফা আহমেদ দোহা প্রমুখ। এ ছাড়া ডেন্টাল, মেডিসিন, জেনারেল সার্জারি, অর্থোপেডিক সার্জারি, নবজাতক ও শিশু বিভাগ, ডার্মাটোলজিসহ অন্যান্য বিভাগ রয়েছে এখানে। এ ছাড়াও হাসপাতালটিতে অগ্নিদগ্ধ রোগীদের চিকিৎসা, প্লাস্টিক সার্জারি, ঠোঁট কাটা-তালু কাটা রোগের চিকিৎসা, নাক-কান-গলার জটিল চিকিৎসায় বিশ্বমানের সুবিধা রয়েছে। সব বিভাগেই রয়েছে অত্যাধুনিক সব যন্ত্রপাতি।

 



সাতদিনের সেরা