kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

একই পরিবারের দুজনসহ সড়কে নিহত ৮

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একই পরিবারের দুজনসহ সড়কে নিহত ৮

মাহফিলে অংশ নেওয়া শেষে বাড়ি ফেরার পথে বাস-মাহিন্দ্রার মুখোমুখি সংঘর্ষে বরগুনার বামনা উপজেলার একই পরিবারের এক শিশু ও এক কিশোর নিহত হয়েছে। গত শনিবার ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের কাশিপুরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া গতকাল রবিবার পঞ্চগড়ে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীসহ দুজন, কিশোরগঞ্জে ট্রাক্টরের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে দুজন, বগুড়ার শেরপুরে ট্রাকচাপায় এক নারী এবং পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় ইজি বাইক ও ট্রলির সংঘর্ষে এক দিনমজুর মারা গেছেন। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

বামনা (বরগুনা) : নিহত দুজন হলো বামনার আমতলী গ্রামের হাফেজ আক্তারুজ্জামানের ছেলে মো. নোমান (১৩) এবং আবু জাফরের ছেলে আবু হামজা (৯)। তারা দুজন চাচাতো ভাই। এ ঘটনায় নোমানের বড় ভাই মো. আইয়ান (১৬) গুরুতর আহত হয়েছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দুপুরে বাড়ি থেকে তিন ভাই মিলে পিরোজপুরের ছারছিনার দরবার শরিফের মাহফিলে যায়। বাড়ি ফেরার পথে রাত ১১টার দিকে তাদের বহনকারী মাহিন্দ্রার সঙ্গে ঢাকাগামী সাকুরা পরিবহনের একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনাস্থলেই নোমান ও হামজা মারা যায়। আহত আইয়ানকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়।

পঞ্চগড় : পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায়

 নিহতরা হলেন বোদা উপজেলার চন্দনবাড়ী ইউনিয়নের মীরপাড়া এলাকার সুফিয়া খাতুন (৫০) এবং পঞ্চগড় সদর উপজেলার টুনিরহাট ডাঙ্গাপাড়া এলাকার দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হাফেজ তাজুল ইসলাম (২৮)। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেলে বোদা উপজেলা সদরের পূর্ব বাইপাস এলাকায় ট্রাক্টর ও থ্রি হুইলারের (পাগলু) মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মারা যান যাত্রী সুফিয়া খাতুন। এ সময় তাঁর স্বামীসহ আরো দুজন আহত হন। অন্যদিকে প্রায় একই সময়ে তাজুল ইসলাম তেঁতুলিয়া উপজেলার ভজনপুর নিজবাড়ী এলাকায় মহাসড়ক পার হওয়ার সময় পঞ্চগড়গামী একটি ট্রাক তাঁকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

কিশোরগঞ্জ : নিহত দুজন হলেন তাড়াইল উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের ভাউয়াল গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আসাদুজ্জামান ভূঁইয়া (৪৫) এবং একই উপজেলার দামিহা গ্রামের ইলেকট্রিক মিস্ত্রি দেলোয়ার হোসেন (২০)। পুলিশ জানায়, গতকাল সন্ধ্যার দিকে কিশোরগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা তাড়াইল যাচ্ছিল। পথে বেপরোয়া গতির একটি ট্রাক্টর অটোরিকশাটিকে চাপা দিলে চালকসহ এর পাঁচ আরোহী গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজন মারা যান। বাকিদের মধ্যে অটোচালক বাদলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শেরপুর (বগুড়া) : শেরপুরে নিহত আছিয়া বেগম (৩৮) উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের খন্দকারটোলা দক্ষিণপাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের স্ত্রী। স্বজনরা জানায়, গতকাল বিকেলে আছিয়া বেগম একটি অটোরিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাঁকে বহনকারী অটোরিকশাটিকে আরেকটি অটোরিকশা সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি ছিটকে মহাসড়কে পড়ে গেলে একটি দ্রুতগতির ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। 

পিরোজপুর : ভাণ্ডারিয়ায় নিহত দিনমজুর হাবীব মীর (৬১) ইন্দুরকানী উপজেলার ওয়াহাব মীরের ছেলে। পুলিশ জানায়, গতকাল দুপুরে ভাণ্ডারিয়ার বঙ্গবন্ধু সড়কের বাইপাস মোড়ে একটি ইজি বাইক ও একটি ইট বহনকারী ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে হাবীব মারা যান এবং ইজি বাইকের আরো ৯ যাত্রী আহত হয়। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ছয়জনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।