kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

সম্পর্কে নতুন অধ্যায় চায় জাপান ও বাংলাদেশ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সম্পর্কে নতুন অধ্যায় চায় জাপান ও বাংলাদেশ

বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীতে আগামী বছর দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে নতুন এক অধ্যায় শুরু করতে চায় বাংলাদেশ ও জাপান। পারস্পরিক সমন্বিত সহযোগিতার সম্পর্ককে কৌশলগত অংশীদারিতে নিয়ে যেতে চায় দেশ দুটি। গতকাল বৃহস্পতিবার দুই দেশের পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের ভার্চুয়াল বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন ও জাপানের পক্ষে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি মিনিস্টার (পররাষ্ট্রসচিব) হিরোশি সুজুকি নেতৃত্ব দেন। বৈঠকের পর পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘সমন্বিত সম্পর্ককে কিভাবে কৌশলগত সম্পর্কে উন্নীত করা যায়, সে ব্যাপারে আমরা চেষ্টা করছি এবং আলোচনা করেছি। দুই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলা ওই বৈঠকে কৌশলগত সম্পর্ক গড়ার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এ ব্যাপারে জাপান বেশ আগ্রহ দেখিয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, উভয় পক্ষই আঞ্চলিক ইস্যু ও বিগ-বি (বে অব বেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্রোথ বেল্ট) উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা করেছে। জাপান স্বাধীন ও মুক্ত ইন্দো প্যাসিফিক ইস্যু এবং পুরো অঞ্চলের উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেছে। কৌশলগত সম্পর্ক, সর্বোচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক সফর, রোহিঙ্গা, বাণিজ্য, বিনিয়োগ, উন্নয়ন সহযোগিতাসহ নানা বিষয় নিয়ে বাংলাদেশ ও জাপানের পররাষ্ট্রসচিবরা আলোচনা করেছেন। জাপান মাতারবাড়ীকে কেন্দ্র করে উত্তর-পূর্ব ভারত ও মিয়ানমারসহ আঞ্চলিক উন্নয়ন পরিকল্পনা করছে। ওই পরিকল্পনায় তারা বাংলাদেশকেও পাশে চায়।   

পররাষ্ট্রসচিব জানান, দক্ষিণ চট্টগ্রাম ও সেখানে উন্নয়ন সহযোগিতার ক্ষেত্রে নতুন প্রকল্প নেওয়ার ব্যাপারে জাপানের আগ্রহ আছে। তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে উত্তর-পূর্ব ভারত, মিয়ানমার সব মিলিয়ে তাদের বড় পরিকল্পনার অংশ। আমরাও এটিতে শরিক হতে চাই ও হয়েছি।’

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ জাপানের সহযোগিতা চেয়েছে উল্লেখ করে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘আমরা তাদের জানিয়েছি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর আমাদের কেমন অবস্থান নিতে হচ্ছে। আমরা আমাদের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছি এবং তারা সেটি বুঝতে পেরেছে। আমাদের মূল লক্ষ্য প্রত্যাবাসন। তারা সেটিকে সম্মান করে।’ এ ছাড়া করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীর পরিকল্পনা ঠিকভাবে করা না গেলেও ২০২২ সালে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর সফরসহ অনেক কর্মসূচি হাতে নেওয়া হচ্ছে বলে জানান পররাষ্ট্রসচিব।

মন্তব্য