kalerkantho

রবিবার। ২৮ চৈত্র ১৪২৭। ১১ এপ্রিল ২০২১। ২৭ শাবান ১৪৪২

সবিশেষ

গেঁটে বাতের ওষুধে সারছে করোনা!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গেঁটে বাতের ওষুধে সারছে করোনা!

গেঁটে বাতের ওষুধ হিসেবে অতিপরিচিত কোলচিসিন করোনাভাইরাস সংক্রমিত ব্যক্তির শারীরিক জটিলতা ও মৃত্যুঝুঁকি কমায় বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। কানাডায় পরিচালিত এক ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে এই আশাব্যঞ্জক সাফল্য পাওয়া গেছে। ওষুধটি করোনা মোকাবেলায় নতুন দিশা হতে পারে বলে গবেষকরা মনে করছেন।

গবেষণায় নেতৃত্ব দিয়েছেন মন্ট্রিয়ল হার্ট ইনস্টিটিউটের প্রধান জ্যঁ ক্লদ তারডিফ। গত বছরের মার্চ থেকে চার হাজার ৪৪৮ জন রোগীর ওপর গবেষণাটি পরিচালিত হয়েছে। গবেষণার পূর্ণাঙ্গ ফল শিগগিরই প্রকাশিত হবে।

কোলচিসিন গ্রহণকারীদের তথ্য বিশ্লেষণ করে জ্যঁ ক্লদ তারডিফ জানিয়েছেন, এই ওষুধ গ্রহণের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজনীয়তা ২৫ শতাংশ কমেছে। ভেন্টিলেটর নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা হ্রাস পেয়েছে ৫০ শতাংশ। এমনকি মৃত্যুঝুঁকি কমেছে ৪৪ শতাংশ।

করোনা মোকাবেলায় কোলচিসিন বড় ধরনের অবদান রাখতে পারে বলে মনে করেন জ্যঁ ক্লদ তারডিফ। তাঁর কথায়, ওষুধটি ১৫০ বছর আগে উদ্ভাবিত হয়েছে। দীর্ঘ সময় ধরে গেঁটে বাতসহ বিভিন্ন রোগের ওষুধ হিসেবে কোলচিসিন ব্যবহার হয়ে আসছে। সবচেয়ে বড় কথা হলো, ওষুধটি শুধু কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্সের মতো দেশেই পাওয়া যায় না; এটি আফ্রিকা ও এশিয়ার দরিদ্র দেশগুলোতেও সহজলভ্য। এ কারণে ওষুধটি করোনা মোকাবেলায় বিপ্লব বয়ে আনতে পারে। জ্যঁ ক্লদ তারডিফ বলেন, ‘আমাদের গবেষণার ফল রোগী, স্বাস্থ্যকর্মী ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থার জন্য বড় ধরনের সুসংবাদ দিয়েছে। এসংক্রান্ত গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশের জন্য গত রবিবার একটি বিখ্যাত চিকিৎসা সাময়িকীতে জমা দেওয়া হয়েছে। আশা করি শিগগিরই তা প্রকাশিত হবে। এরপর বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা করোনা চিকিৎসায় ওষুধটির ব্যবহারের অনুমোদন দিতে পারে।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য