kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

সবিশেষ

শনির উপগ্রহে হাজার ফুট গভীর সমুদ্র!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শনির উপগ্রহে হাজার ফুট গভীর সমুদ্র!

এক শ, দুই শ নয়—হাজার ফুট গভীর সমুদ্রের হদিস মিলল শনির উপগ্রহ টাইটানে; যা দেখে বেশ বিস্মিত বিজ্ঞানীমহল। অঙ্ক কষে তাঁরা বলছেন, এই আয়তন পৃথিবীর অন্তত পাঁচটি বড়সড় লেকের সমান। এতটা গভীরতায় বেশ ভালোভাবেই কোনো রোবট সাবমেরিন চলাফেরা করতে পারে বলে মত তাঁদের। আপাতত পানির গভীরতা নিয়ে নতুন করে গবেষণায় মগ্ন বিজ্ঞানীরা।

শনির উপগ্রহ টাইটানের উত্তর মেরু অঞ্চলে ক্র্যাকেন মেয়ার নামের এক বড়সড় জলাশয়ের খোঁজ মিলেছিল আগেই। সেখানে ইথেন ও মিথেন গ্যাস তরল আকারে রয়েছে। এই বিপুল সমুদ্রের আয়তন এক লাখ ৫৪ হাজার বর্গমাইল। এসব তথ্য জানাই ছিল। কিন্তু জলাশয়ের গভীরতা কতটা, সে বিষয়ে কোনো ধারণা ছিল না বিজ্ঞানীদের। কর্নেল সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোফিজিকস অ্যান্ড প্ল্যানেটারি সায়েন্সের হিসাব-নিকাশ থেকে তা স্পষ্ট হয়ে গেল।

বলা হচ্ছে, টাইটানের এই সমুদ্রের আয়তন বা গভীরতার সঙ্গে পৃথিবীর মিল আছে। টাইটানের এখন যে রূপ, তা একমাত্র পৃথিবী জন্মের প্রথম অবস্থায় ছিল; অর্থাৎ এতটা জলাশয়। তবে টাইটানে কিভাবে এত পানি এলো, তা এর মিথেন গ্যাস পরীক্ষা করলে বোঝা যাবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ টাইটানের সমুদ্র গ্যাসের তরল অবস্থা থেকেই তৈরি বলে প্রাথমিক ধারণা তাঁদের।

এক বিজ্ঞানীর কথায়, সেদিন খুব দূরে নয় যখন এই ক্র্যাকেন মেয়ারে রোবটিক সাবমেরিন চলাচল করতে পারবে। এই গভীরতার আন্দাজ পাওয়া খুব ভালো হয়েছে গবেষণার পক্ষে। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা