kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন

বিএনপির ৯ প্রতিশ্রুতির ৭৫ প্রস্তাবনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির ৯ প্রতিশ্রুতির ৭৫ প্রস্তাবনা

জলাবদ্ধতামুক্ত স্বাস্থ্যকর চট্টগ্রাম, গৃহ কর ও আবাসন সুবিধা, শিক্ষাবান্ধব, পরিচ্ছন্ন ও নিরাপদ, সাম্য-সম্প্রীতি ও নান্দনিক পর্যটন নগর এবং তথ্য-প্রযুক্তি সমৃদ্ধ চট্টগ্রাম গড়ার ৯টি প্রতিশ্রুতি দিয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণা করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন। গতকাল শনিবার দুপুরে নগরের জামালখানে একটি রেস্টুরেন্টে নির্বাচনী এ ইশতেহার ঘোষণা করেন তিনি। ইশতেহারে ঘোষিত ৯টি প্রতিশ্রুতির মধ্যে ৭৫টি প্রস্তাবণা রয়েছে।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুন নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, নগর বিএনপির সদস্যসচিব আবুল হাশেম বক্কর, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির  আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান উপস্থিত ছিলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘জলাবদ্ধতামুক্ত চট্টগ্রাম গড়তে শহরের খালগুলো উদ্ধার করে পানি চলাচলের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। খালের উভয় পাশ রক্ষায় বাঁধ নির্মাণ করা হবে। প্রতিবছর বর্ষার আগে শহরের সব খাল, নালা-নর্দমা সংস্কারসহ পানি চলাচলের উপযুক্ত করে জলাবদ্ধতার নিরসন করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘করপোরেশন এলাকায় অবহেলিত বিভাগগুলোর মধ্যে অন্যতম স্বাস্থ্য বিভাগ। নগরের জনসংখ্যা গত ৫০ বছরে প্রায় ২০ গুণ বাড়লেও নতুন কোনো হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত হয়নি। রাজধানীতে ১০টি বিশেষায়িত হাসপাতাল থাকলেও চট্টগ্রামে পর্যাপ্ত নেই। চট্টগ্রামে স্বাস্থ্যসেবার পরিধি বাড়াতে দুই হাজার শয্যার আরো হাসপাতাল প্রয়োজন। শিশু হাসপাতাল, মাতৃসদন, ট্রমা সেন্টারসহ বিশেষায়িত হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

বিএনপি প্রার্থী বলেন, ‘হোল্ডিং ট্যাক্স বা গৃহ কর ও আবাসন নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। নিম্ন আয়ের নগরবাসী, মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের আবাসন করমুক্ত করা হবে। হিজড়া, ভবঘুরে ও ভিক্ষুকদের পুনর্বাসন করা হবে। শ্রমজীবীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদি কিস্তিতে আবাসন সুবিধার উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

ডা. শাহাদাত বলেন, ‘সিটি করপোরেশন একটি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। জনগণের উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে বর্তমান গৃহ করের প্রয়োজনীয় বিন্যাস, সরলীকরণসহ সহনীয় পর্যায়ে রাখা হবে। এ ছাড়া সিটি করপোরেশন পরিচালিত শিক্ষা কার্যক্রম, নগরের পরিচ্ছন্নতা, নিরাপদ চট্টগ্রাম, সাম্য-সম্প্রীতির চট্টগ্রাম, নান্দনিক পর্যটন নগর, তথ্য-প্রযুক্তি সমৃদ্ধ চট্টগ্রাম গড়ে তোলা হবে।’

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা