kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ মাঘ ১৪২৭। ২৮ জানুয়ারি ২০২১। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

এবার লোহাগাড়ায় গুলিতে হাতি হত্যা

সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২৪ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এবার লোহাগাড়ায় গুলিতে হাতি হত্যা

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে মারা যাওয়া হাতি। ছবি : কালের কণ্ঠ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় গুলি করে একটি বন্য হাতিকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গত রবিবার রাতে উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের চাকফিরানী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সম্প্রতি কক্সবাজারে তিনটি হাতি হত্যার ঘটনা ঘটে। এর পরপরই লোহাগাড়ায় এই প্রাণী হত্যার ঘটনা ঘটল।

বড়হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এম ডি জুনায়েদ জানান, ধান কাটার মৌসুমে প্রায় প্রতিদিনই বন্য হাতির দল লোকালয়ে আসে। গত রবিবার রাতে বন্য হাতির দল ধানক্ষেতে আসার পর কে বা কারা গুলি করে বন্য হাতিটিকে মেরেছে। গতকাল সোমবার সকালে স্থানীয় কৃষকরা ধান কাটার জন্য বিলে গেলে মৃত হাতিটি পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে বন বিভাগের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত হাতিটি উদ্ধার করে। ময়নাতদন্ত শেষে সেখানেই হাতিটি মাটিচাপা দেওয়া হয়।

তিনি আরো জানান, বছর দুয়েক আগে একই এলাকায় বৈদ্যুতিক ফাঁদে আটকা পড়ে দুটি বন্য হাতি মারা যায়। হাতি রক্ষায় স্থানীয় বন কর্মকর্তাদের নজরদারি বৃদ্ধি করা দরকার।

গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চট্টগ্রাম অঞ্চলের বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা আ ন ম ইয়াছিন নেওয়াজ এবং চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম। বন্য হাতির মৃত্যুর বিষয়ে শফিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

উপজেলার ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মো. আসাদুজ্জামান জানান, মূলত মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে বন্য হাতিটি মারা গেছে। ক্ষতস্থান থেকে একটি গুলি বের করা হয়েছে।

লোহাগাড়া থানার ওসি জাকির হোসাইন মাহামুদ জানান, বন্য হাতির মৃত্যুর ঘটনায় চুনতি রেঞ্জের বড়হাতিয়ার বনবিট কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

গণমাধ্যমের প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ৬ নভেম্বর কক্সবাজারের চকরিয়ার খুটাখালীর কালাপাড়ার বনাঞ্চলে একটি বাচ্চা হাতিকে গুলি করে হত্যা করা হয়। আট দিনের ব্যবধানে ১৪ নভেম্বর কক্সবাজারের রামুর জোয়ারিয়ানালার জুমছড়ির বনাঞ্চলে ৩০ বছর বয়সী স্ত্রী হাতিকে গুলি করা হয়। ওই হাতি ১৬ নভেম্বর মারা যায়। আর ১৫ নভেম্বর কক্সবাজার রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ির খরলিয়াছড়ায় গুলি করে আরো একটি হাতিকে হত্যা করা হয়। সাম্প্রতিক এসব ঘটনায় পরিবেশবাদীরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারের (আইইউসিএন) পর্যবেক্ষণ হচ্ছে—এভাবে চলতে থাকলে বাংলাদেশ থেকে এশীয় হাতি বিলুপ্ত হতে বেশি সময় লাগবে না। বন বিভাগের হিসাবে গত এক বছরে হাতি মারা গেছে ১৮টি, এর মধ্যে কক্সবাজার অঞ্চলে অন্তত ১৩টি বন্য হাতি হত্যা করার মতো বর্বর ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া বান্দরবানের লামা এবং দক্ষিণ চট্টগ্রামে কয়েকটি হাতি মারা গেছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা