kalerkantho

সোমবার । ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৩ নভেম্বর ২০২০। ৭ রবিউস সানি ১৪৪২

সবিশেষ

চাঁদে মিলল পানির খোঁজ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদে মিলল পানির খোঁজ

পানির সন্ধান মিলল চাঁদে। যুগান্তকারী এই ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। সংস্থার ঘোষণা অনুযায়ী, পানির অণুর খোঁজ মিলেছে চাঁদের গহ্বরে। সূর্যের আলো চাঁদের যে অংশে পড়ে, সেখানেই পানির খোঁজ মিলেছে। নাসার স্ট্র্যাটোস্ফেরিক অবজারভেটরি ফর ইনফ্রারেড অ্যাস্ট্রোনমি বলেছে, চাঁদের ক্লেভিয়াস গহ্বরে হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন জোট বেঁধে পানির অণু তৈরি করেছে। এর আগে চাঁদের পৃষ্ঠে হাইড্রোজেনের খোঁজ মিলেছিল। তবে হাইড্রোজেন অক্সিজেনের সঙ্গে কোনো রাসায়নিক জোট বেঁধে রয়েছে, তা এত দিন জানা যায়নি। নাসার দাবি, ক্লেভিয়াস ক্রেটারে ১২ আউন্সের মতো পানি জমে আছে। চাঁদের মাটি ও ধূলিকণায় এক ঘনমিটার পর্যন্ত জায়গাজুড়ে পানির অণু ছড়িয়ে আছে।

নাসার এসংক্রান্ত গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে নেচার অ্যাস্ট্রোনমি সাময়িকীতে। গবেষণার নেতৃত্বে থাকা ক্যাসি হোন্নিবলের দাবি, চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অন্ধকার পিঠে পানি জমে থাকতে পারে বলে এত দিন মনে করা হতো। তবে নয়া আবিষ্কারের পর সেই ধারণা বদলে গেল। সানলিট সারফেস, অর্থাৎ চাঁদের যে পৃষ্ঠে সূর্যের আলো এসে পড়ে, সেখানে পানির খোঁজ মিলেছে।

১৯৬৯ সালে নাসার অ্যাপোলো অভিযানে জানা যায়, চাঁদ সম্পূর্ণ রুক্ষ ও শুষ্ক। পরে অবশ্য নাসারই লুনার ক্রেটার অবজারভেশন অ্যান্ড সেন্সিং স্যাটেলাইট জানিয়েছিল যে চাঁদের পৃষ্ঠ শুষ্ক নয়, বরফ জমে আছে চাঁদের মেরুতে। পরেও নাসার বিভিন্ন অভিযানে এই তত্ত্বের সত্যতার প্রমাণ মেলে।

ইসরোর প্রথম চন্দ্রাভিযান চন্দ্রযান-১-এর যাত্রা সফল না হলেও মহাকাশবিজ্ঞানীরা জানিয়েছিলেন, চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে বরফ জমে আছে। সূত্র : এই সময়।

মন্তব্য