kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

করোনার আগের অর্থনীতি ফিরিয়ে দেবেন ট্রাম্প

‘ফাউচির কথা শুনলে যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ লাখ মানুষ মারা যেত’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




করোনার আগের অর্থনীতি ফিরিয়ে দেবেন ট্রাম্প

ছবি: ইন্টারনেট

কভিড-১৯-এ আক্রান্ত হওয়ায় কয়েক দিন নির্বাচনী সভা-সমাবেশ করতে পারেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সে কারণেই হয়তো এখন রাত-দিন এক করে ভোটের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবারও স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্পকে সঙ্গে নিয়ে একের পর এক সভা-সমাবেশ করেছেন ‘সুইং স্টেট’ হিসেবে পরিচিত পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে।

মার্কিন গণমাধ্যমের খবর, পেনসিলভানিয়ার একটি সমাবেশে ট্রাম্পের পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলেন মেলানিয়া। এক বছরেরও বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো স্ত্রীকে পাশে নিয়ে কোনো সমাবেশে ভাষণ দিলেন ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রে আগামী ৩ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তবে মেইলে আগাম ভোট শুরু হয়ে গেছে। এরই মধ্যে প্রায় তিন কোটি মানুষ ভোট দিয়ে ফেলেছে। ‘রিয়ালক্লিয়ারপলিটিকস’-এর সর্বশেষ জনমত বলছে, ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের জনপ্রিয়তা ট্রাম্পের চেয়ে ৮.৯ শতাংশ বেশি রয়েছে।

এদিকে গত সোমবার ফ্লোরিডায় নির্বাচনী প্রচার চালান বাইডেন। একই দিন ট্রাম্প ছিলেন আরিজোনায়। এই অঙ্গরাজ্যে ২০১৬ সালের নির্বাচনে সহজ জয় পেয়েছিলেন ট্রাম্প। তবে এবার জয় পাওয়া কঠিন হবে বলে জনমত জরিপে উঠে এসেছে।

আরিজোনার টুসন শহরে এক সমাবেশে ট্রাম্প প্রতিশ্রুতি দেন, তিনি বিজয়ী হলে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি করোনা মহামারির আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নেবেন। তিনি বলেন, ‘এই নির্বাচনে মানুষ আমার পুনরুদ্ধার ক্ষমতাকে বেছে নেবে, নয়তো বাইডেনের হতাশাকে বেছে নেবে।’

সমাবেশে আসা বেশির ভাগ সমর্থক মাস্ক পরা ছিল না। শারীরিক দূরত্বও ছিল না তাদের মধ্যে। ট্রাম্প বলেন, মার্কিনিরা করোনাকে জয় করে ফেলেছে।

পুরনো ইস্যু টেনে বাইডেনের সমালোচনাও করেন ট্রাম্প। তিনি আরো বলেন, ইউক্রেনের একটি দুর্নীতির সঙ্গে বাইডেনের সম্পৃক্ততা ছিল, এটা পরিষ্কার।

ট্রাম্পের এই অভিযোগ অস্বীকার করে বাইডেনের নির্বাচনী প্রচারদলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মহামারি মোকাবেলার ব্যর্থতা আড়াল করতে ট্রাম্প এসব বলে বেড়াচ্ছেন।

এদিকে গত সোমবার ফ্লোরিডায় আগাম ভোট শুরু হয়েছে। ভোটকেন্দ্রগুলোতে দেখা গেছে, মানুষজন মাস্ক পরে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে আছে। মায়ামি সৈকতের কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা জ্যাকেলিন মাউরিচ বলেন, ‘চার বছর ধরে অপেক্ষায় ছিলাম। অবশেষ আজ ভোট দিলাম। আমি বাইডেনকে বেছে নিয়েছি।’

ফ্লোরিডায় বাইডেনের সঙ্গে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তার পার্থক্য অনেকটা কমে গেছে। সর্বশেষ জনমত জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে বাইডেন ১.৪ শতাংশ ব্যবধানে এগিয়ে ছিলেন। যদিও সপ্তাহ দুয়েক আগের জনমত জরিপে এই পার্থক্য ছিল ৪.৫ শতাংশ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের পরিচালক অ্যান্থনি ফাউচির কঠোর সমালোচনা করেছেন ট্রাম্প। নিজ দলের নির্বাচনী কর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রাম্প অভিযোগ করেন, ‘ফাউচির কথা শুনলে যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে অন্তত পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হতো।’ ফাউচিসহ অনেক স্বাস্থ্যবিশেষজ্ঞ করোনা মহামারির প্রতি বেশি মনোযোগ দিয়ে ফেলেছেন বলেও অভিযোগ করেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, “মানুষজন এখন বলছে ‘আমাদের আমাদের মতো থাকতে দিন’। মানুষজন ফাউচিদের কথা শুনতে শুনতে ক্লান্ত হয়ে গেছে।”

এদিকে ফাউচির পক্ষ নিয়ে বাইডেন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, একটি বিষয়ে আপনি সঠিক। জনগণ আপনাকে নিয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়েছে। মানুষ মৃত্যু দেখে দেখে ক্লান্ত। তারা ক্লান্ত, কারণ মহামারিকে আপনি সঠিক সময়ে গুরুত্ব দেননি।’ সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা