kalerkantho

শনিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৭। ২৪ অক্টোবর ২০২০। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

স্কুলছাত্রী হত্যা, ফাঁসির দণ্ড

সাড়ে ১৪ বছর কনডেম সেলে এখন ‘নির্দোষ’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাড়ে ১৪ বছর কনডেম সেলে এখন ‘নির্দোষ’

কুমিল্লার লাকসামে আট বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীকে হত্যার মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া একমাত্র আসামি সাড়ে ১৪ বছর কারাগারের কনডেম সেলে থাকার পর সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে নির্দোষ সাব্যস্ত হয়েছেন।

ফাঁসির আসামি হুমায়ুন কবিরের জেল আপিল গ্রহণ করে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ গতকাল মঙ্গলবার এক রায়ে তাঁকে খালাস দেন। আসামিপক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট এ বি এম বায়েজিদ। রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

অ্যাডভোকেট এ বি এম বায়েজিদ সাংবাদিকদের জানান, নিহত শিশুটির ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের সঙ্গে আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির মিল নেই। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুটির মাথার খুলি ভাঙা ছিল। আর আসামির দেওয়া জবানবন্দিতে বলা হয়েছে, শিশুটির মুখ চেপে ধরে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়া এই মামলায় শিশুটির বাবাসহ ১২ জনের দেওয়া সাক্ষ্যে গরমিল থাকায় আদালত আসামিকে খালাস দিয়েছেন।

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার কনকশ্রী গ্রামের সাকেরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থী ২০০৪ সালের ৩০ জুন বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় শিশুটির চাচা মো. জসিমউদ্দিন লাকসাম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এরপর ওই বছরের ২ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করা হয়। দুই দিন পর ৪ জুলাই ট্রাকচালক হুমায়ুন কবিরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই দিনই একই গ্রামের মাস্টারবাড়ির কালভার্টের পাশে জঙ্গল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। হুমায়ুন কবিরকে একমাত্র আসামি দেখিয়ে পুলিশ ওই বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর অভিযোগপত্র দাখিল করে। এই মামলায় বিচার শেষে চট্টগ্রামের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল হুমায়ুন কবিরকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে ২০০৬ সালের ৫ এপ্রিল রায় দেন। এই রায় অনুমোদনের জন্য হাইকোর্টে ডেথ রেফারেন্স পাঠানো হয়। একই সঙ্গে কারাবন্দি হুমায়ুন কবির এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন। উভয় আবেদনের ওপর শুনানি শেষে হাইকোর্ট তাঁর মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে ২০১২ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি রায় দেন। এই রায়ের বিরুদ্ধে জেল আপিল করেন হুমায়ুন কবির। এই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে গতকাল তাঁকে খালাস দিয়ে রায় দেন আপিল বিভাগ।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা