kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ইকরামের চিকিৎসায় এগিয়ে এলো বসুন্ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইকরামের চিকিৎসায় এগিয়ে এলো বসুন্ধরা

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমের সাংবাদিক ইকরাম-উদ দৌলার চিকিৎসায় অনুদান প্রদান করেন বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালক সাবরিনা সোবহান। এ সময় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর উপস্থিত ছিলেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমের সিনিয়র করেসপনডেন্ট ইকরাম-উদ দৌলার পাশে দাঁড়িয়েছে দেশের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ। তাঁর উন্নত চিকিৎসার জন্য নগদ অনুদানের পাশাপাশি সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে বসুন্ধরা। গতকাল রবিবার বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের বাসভবনে ইকরাম-উদ দৌলার ছোট বোন নীলিমা ইয়াসমিনের হাতে অনুদানের তিন লাখ টাকা তুলে দেন গ্রুপের পরিচালক সাবরিনা সোবহান।

এ সময় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক জুয়েল মাজহার, ব্যবস্থাপনা পরিচালকের প্রধান সমন্বয়ক মোহাম্মদ গোলাম ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ব্যক্তিগত সচিব বিনোদ পি ম্যাথিউ উপস্থিত ছিলেন। এমডি সায়েম সোবহান আনভীর এ সময় ইকরাম-উদ দৌলার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। একই সঙ্গে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনে আরো সহায়তার আশ্বাস দেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা ও চিকিৎসার বিষয়ে নিয়মিত জানাতে বলেন। সংকটকালে পাশে দাঁড়ানোর জন্য ইকরামের বোন নীলিমা ইয়াসমিন ও তাঁর স্বামী দিদারুল ইসলাম রাসেল বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পরিচালকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তাঁরা বসুন্ধরা গ্রুপের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

গত ১১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে রাজধানীর খিলক্ষেতে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন বাংলানিউজের সিনিয়র করেসপনডেন্ট ইকরাম-উদ দৌলা। তাঁর ডান পাঁজরের ১১টি হাড় ভেঙে যায়। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ও পরে বাংলাদেশ মেডিক্যালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে।

প্রসঙ্গত, করোনা মহামারির শুরু থেকেই মানুষের জন্য বিভিন্ন ধরনের মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ করে বসুন্ধরা গ্রুপ। এসবের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১০ কোটি টাকা অনুদান, পাঁচ হাজার শয্যার অস্থায়ী কভিড হাসপাতাল স্থাপনের জন্য ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা ছেড়ে দেওয়া এবং দেশব্যাপী হাজার হাজার দরিদ্র মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ অন্যতম। এ ছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া তিন সাংবাদিকের পরিবারকে পাঁচ লাখ করে মোট ১৫ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। রাজধানীর বাড্ডায় গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেণুর সন্তানদের পড়ালেখার খরচ চালানোর জন্যও ১০ লাখ টাকার এফডিআর করে দিয়েছেন বসুন্ধরা গ্রুপের পরিচালক সাবরিনা সোবহান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা