kalerkantho

বুধবার । ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১২ সফর ১৪৪২

এক ইলিশের দাম সাত হাজার টাকা

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি    

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক ইলিশের দাম সাত হাজার টাকা

বাগেরহাটের শরণখোলার বলেশ্বর নদে গতকাল এমাদুল শেখের জালে ধরা পড়ে প্রায় আড়াই কেজি ওজনের ইলিশটি। ছবি : কালের কণ্ঠ

বাগেরহাটের জেলে এমাদুল শেখের চোখ-মুখ খুশিতে চকচক করছিল। এমাদুলের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ এর আগেও ধরা পড়েছে। কিন্তু গতকাল মঙ্গলবারের দিনটি তাঁর মনে থাকবে অনেক দিন। শরণখোলার বলেশ্বর নদে এই দিন তাঁর জালে উঠেছে দুই কেজি ৩০০ গ্রাম ওজনের বিশাল এক ইলিশ।

দর্শনীয় আকারের এই ইলিশটি একনজর দেখতে রায়েন্দা বাজারের শের-ই-বাংলা সড়কের মাছের বাজারে এই দিন বিকেলে রীতিমতো ভিড় পড়ে যায় উত্সুক জনতার। এমাদুলের ধরা ইলিশটি বাজারে ওঠানোর পর সাড়ে তিন হাজার টাকা কেজি দর হাঁকা হয়।

স্থানীয় মৎস্য ব্যবসায়ী আবুল বাশার জানান, তাঁর দাদন দেওয়া জেলে এমাদুল শেখের জালে ইলিশটি ধরা পড়েছে। সাড়ে তিন হাজার টাকা কেজি হিসাবে মাছটির দাম আসে আট হাজার ৫০ টাকা। সচরাচর এত বড় ইলিশের দেখা মেলে না বলেই দাম একটু বেশি বলে জানান তিনি। শেষ পর্যন্ত মাছটি তিন হাজার টাকা কেজি হিসাবে ছয় হাজার ৯০০ টাকায় বিক্রি হয় বলে জানা গেছে। তবে মাছ বিক্রির এই টাকার পুরোটা পাবেন না জেলে এমাদুল। নিয়ম মোতাবেক এর একটা অংশ (৩০ শতাংশ) পাবেন দাদনদাতা মহাজন।

প্রসঙ্গত, ইলিশ সংরক্ষণ ও জাটকা নিধন বন্ধে মৎস্য আহরণে সরকারি নির্দেশে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা চালুর সুফল হিসেবে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে আশানুরূপ। একই সঙ্গে সাম্প্রতিক সময়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে জেলেদের জালে বিশালাকার ইলিশ হরহামেশাই ধরা পড়ছে।

এর আগে গত ৩০ আগস্ট রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া এলাকায় পদ্মা নদীতে জেলে গোপাল হালদারের জালে দুই কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের একটি ইলিশ ধরা পড়ে। এ ছাড়া গত বছরের ২০ অক্টোবর সিলেটের সুরমা নদীতে ধরা পড়েছিল সোয়া দুই কেজি ওজনের একটি ইলিশ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা