kalerkantho

মঙ্গলবার । ৭ আশ্বিন ১৪২৭ । ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৪ সফর ১৪৪২

সংক্রমণ মৃত্যুহার ক্রমেই নিম্নমুখী

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সংক্রমণ মৃত্যুহার ক্রমেই নিম্নমুখী

চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুহার ক্রমেই নিম্নমুখী হচ্ছে। মৃত্যুহার বেড়ে দুই মাস আগে ২.৪১ শতাংশে উন্নীত হয়েছিল। তা কমে এখন ১.৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একইভাবে গত মে মাস থেকে জুনে সংক্রমণ প্রায় দ্বিগুণ হলেও জুলাই থেকে তা কমতে শুরু করেছে। এ ছাড়া নমুনা পরীক্ষা অনুপাতে পজিটিভের হারও নিম্নমুখী। ২৫ জুন পর্যন্ত পজিটিভের হার ছিল ২৭.৭৩ শতাংশ। তা কমে এখন ২৩.৮৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুহার কমার মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামে করোনা শনাক্ত রোগী ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে। কালের কণ্ঠ’র অনুসন্ধানে এসব তথ্য মিলেছে। 

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘জুলাইয়ের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ কমছে। তবে আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। মৃত্যুহারও কমেছে। ঈদের পরবর্তী ১৪-১৫ দিন আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এই সময় পর হলে করোনার সংক্রমণ কোন দিকে যাচ্ছে, তা বোঝা যাবে।’ তিনি জানান, করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে হলে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব সবাইকে মানতেই হবে।

৩ এপ্রিল চট্টগ্রামে নগরের দামপাড়ায় প্রথম একজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এর পর থেকে ১২৮ দিনে (৮ আগস্ট পর্যন্ত) করোনা শনাক্ত রোগী দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৬৪ জনে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, চট্টগ্রামে প্রথম ৩০ দিনে করোনা শনাক্ত রোগী ছিল ৭৮ জন। এর পরের ৩০ দিনে তিন হাজার ১১৫ জন এবং তৃতীয় মাসে (৩১ দিন) ছয় হাজার ২১২ জন আক্রান্ত হয়। এরপর চতুর্থ মাসে ৩১ দিনে পাঁচ হাজার ৫৭ জন শনাক্ত হয়। আর সর্বশেষ গত ছয় দিনে শনাক্ত রোগী ৫৬৪ জন। এর মধ্যে প্রথম ৬০ দিনে (৩ এপ্রিল থেকে ১ জুন পর্যন্ত) চট্টগ্রামে শনাক্ত রোগী ছিল তিন হাজার ১৯৩ জন। এই সময়ে করোনায় মারা গেছে ৭৮ জন। তখন মৃত্যুহার ছিল ২.৪৪ শতাংশ। এরপর ২ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত ৩১ দিনে নতুন করে করোনা শনাক্ত রোগী ছিল ছয় হাজার ২১২ জন। এই ৩১ দিনে মারা গেছে ১১০ জন। মৃত্যুহার ১.৭৭ শতাংশ। এদিকে ৩ জুলাই থেকে ২ আগস্ট পর্যন্ত ৩১ দিনে করোনা শনাক্ত হয়েছিল পাঁচ হাজার ৭৫ জনের দেহে। এই সময়ে করোনায় মারা গেছে ৪৬ জন। ওই ৩১ দিনে মৃত্যুহার ছিল ০.৯১ শতাংশ। এদিকে সব মিলিয়ে গত ১২৮ দিনে চট্টগ্রামে মোট করোনা শনাক্ত রোগী ১৫ হাজার ৬৪ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ২৪৩ জন। মৃত্যুহার এখন ১.৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

জানা যায়, গত তিন মাসের মধ্যে এবার করোনা শনাক্ত রোগী হাজার পার হতে ১০ দিনের বেশি সময় লেগেছে। এর আগে প্রায়ই পাঁচ থেকে ১০ দিনের মধ্যে এক হাজার জন করে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। সর্বশেষ ১২ দিনে (২৮ জুলাই থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত) চট্টগ্রামে মোট করোনা শনাক্ত রোগী এক হাজার ৮৮ জন। এই সময়ে মারা গেছে ১৪ জন। 

চট্টগ্রামে ২৫ মার্চ থেকে গত ২৫ জুন পর্যন্ত ৯৩ দিনে চট্টগ্রামে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল ২৬ হাজার ৯২১টি। এর মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছিল সাত হাজার ৪৬৬ জনের দেহে। পরীক্ষা অনুপাতে করোনা পজিটিভের হার ছিল ২৭.৭৩ শতাংশ।

এদিকে গত ২৬ জুন থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত ৪৪ দিনে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৬ হাজার ২০২টি। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে সাত হাজার ৫৯৮ জনের দেহে। অর্থাৎ করোনা পজিটিভের হার ২০.৯৯ শতাংশ।

সব মিলিয়ে চট্টগ্রামে গত ১৩৭ দিনে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬৩ হাজার ১২৩টি। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৬৪ জনের দেহে। অর্থাৎ এখন করোনা পজিটিভের হার ২৩.৮৬ শতাংশ।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা