kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

এনু-রূপনের সহযোগী জয় গোপাল গ্রেপ্তার

► অর্থপাচার মামলার অভিযোগপত্র প্রস্তুত
► ২০৮ কোটি টাকা লেনদেনের তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এনু-রূপনের সহযোগী জয় গোপাল গ্রেপ্তার

ক্যাসিনোকাণ্ডে অভিযুক্ত রাজধানীর ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জয় গোপাল সরকারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তিনি অবৈধ ক্যাসিনো কারবারি গেণ্ডারিয়া আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা এনামুল হক এনু ও রূপন ভুঁইয়ার ঘনিষ্ঠ সহযোগী। তাঁদের বাড়িতে র‌্যাব অভিযান চালানোর পর থেকেই জয় গোপাল পলাতক ছিলেন। গত সোমবার রাতে তাঁকে পুরান ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

দুই সহোদর এনু ও রূপনের বিশাল সম্পদের তথ্য পেয়েছে সিআইডি। সেসব সম্পদের তথ্য উল্লেখ করে অর্থপাচারের মামলার অভিযোগপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। শিগগিরই আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে বলে সিআইডি সূত্রে জানা গেছে।

সিআইডি জানায়, গ্রেপ্তারকৃত জয় গোপাল অতীতে ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের হয়ে খেলেছেন। খেলা থেকে অবসর নিয়ে এ ক্লাবের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য পদ নেন। দুই বছর পর তিনি ক্যাশিয়ারের দায়িত্ব পান। ২০১৪ সালে তিনি ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর এনু ও রূপনের সঙ্গে সখ্য গড়ে ওঠে। এই সূত্র ধরে তিনি তাঁদের ক্লাবে ক্যাসিনো চালাতে সহযোগিতা করেন।

গত ১৩ জানুয়ারি এনু ও রূপনকে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। ক্যাসিনো পরিচালনা করে তাঁরা বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন বলে সিআইডি জানতে পেরেছে। তদন্তে বিভিন্ন ব্যাংকের ৯১টি হিসাবে তাঁদের ২০৮ কোটি ৪৪ লাখ ১১ হাজার ৬৫০ টাকা জমা দেওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। যদিও তাঁরা ২০৫ কোটি ৮৪ লাখ ৮১ হাজার ৮৪ টাকা তুলে নিয়েছেন। ব্যাংক হিসাবগুলোতে তাঁদের স্থিতির পরিমাণ ১৯ কোটি ১২ লাখ ৩৬ হাজার ৩৯৪ টাকা।

সিআইডির তদন্তে বেরিয়ে এসেছে যে দুই ভাইয়ের ২০টি বাড়ি ও ১২৮টি ফ্ল্যাট রয়েছে। এ ছাড়া কেরানীগঞ্জে ১৫ কাঠা, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ১০ কাঠা, শরীয়তপুরের নড়িয়ায় ১২ শতাংশ, পালং থানা এলাকায় পৃথকভাবে ৩৪ শতাংশ জমির মালিকানার বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছে সিআইডি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা