kalerkantho

মঙ্গলবার  । ২০ শ্রাবণ ১৪২৭। ৪ আগস্ট  ২০২০। ১৩ জিলহজ ১৪৪১

ডিএনসিসির ডিজিটাল পশুর হাটের উদ্বোধন

পৃষ্ঠপোষকতা দিলেও আয় নেই সরকারের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




ডিএনসিসির ডিজিটাল পশুর হাটের উদ্বোধন

রাজস্বের বিষয়ে কোনো সুরাহা ছাড়াই যাত্রা শুরু করেছে ‘ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট’। গতকাল শনিবার ডিজিটাল হাটটি উদ্বোধন করা হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উদ্যোগে তৈরি করা কোরবানির পশু বেচাকেনার এই হাট পরিচালনায় সব সহায়তা দেবে অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এবং ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। এই হাটের মাধ্যমে ঘরে বসে অনলাইনে কোরবানির পশু ক্রয় করা যাবে।

জানা গেছে, গতকাল দুপুরে ডিজিটাল হাটটি উদ্বোধনের পর ফ্ল্যাটফর্মটি থেকে কোরবানির গরু কিনেছেন তিন মন্ত্রী।

অনলাইনে হাটটি উদ্বোধনের সময় বলা হয়, ডিজিটাল হাটে শুধু পশুই কেনা নয়, রয়েছে দক্ষ কসাই দিয়ে কোরবানি করিয়ে নিজের কিংবা আত্মীয়র বাসায় মাংস পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ। তবে এতে পশু জবাই ও অন্যান্য প্রক্রিয়ায় গরুর মূল্যের সঙ্গে আরো ২৩ শতাংশ এবং বাসায় পৌঁছানোর জন্য ঢাকার মধ্যে এক হাজার ৫০০ টাকা চার্জ দিতে হবে। তবে এই অর্থের কোনো অংশ সিটি করপোরেশন পাবে না বলে জানা গেছে।

উদ্বোধন শেষে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের যেসব স্থানে করোনার ঝুঁকি রয়েছে, আমরা সেসব স্থানে হাট না বসাতে নির্দেশনা দিয়েছি সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় ইউএনওদের। তাঁরা বিষয়টি তদারকি করবেন। আমরা বলেছি প্রতিবছর যেভাবে একই স্থানে বেশি পশু আনা হয়, এবার যেন তা না করা হয়।’

ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘মূলত করোনার ঝুঁকি এড়াতেই অনলাইনে হাট উদ্বোধন করা হলো। আশা করছি, এর মাধ্যমে প্রান্তিক কৃষক ও খামারিরা উপকৃত হবেন। এ হাটের মাধ্যমে অস্থায়ীভাবে ডিএনসিসির হাটগুলোতে কোনো প্রভাব পড়বে না। কারণ পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত বছর পশু বিক্রি হয়েছে ২৫ লাখের মতো। কিন্তু আমাদের অনলাইনে প্রায় দুই হাজার পশু বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। সুতরাং ২৫ লাখের কাছে এ সংখ্যা কিছুই না।’

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, ‘রোগগ্রস্ত বা কোরবানির অনুপযুক্ত গবাদি পশু যেন কোনোভাবেই বিক্রি না হয়। আমরা ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম করে দিচ্ছি। তারা সেটা লক্ষ রাখবে। গবাদি পশুর বাজারগুলোতে মেডিক্যাল টিম কাজ করবে।’

ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক, ঢাকা বিভাগের কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, ই-ক্যাবের সভাপতি শমী কায়সার প্রমুখ অনলাইনে যুক্ত ছিলেন।

 

মন্তব্য