kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

চট্টগ্রামে ভাতিজা হত্যায় অভিযুক্ত চাচা বন্দুকযুদ্ধে নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৯ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রামে ভাতিজা হত্যায় অভিযুক্ত চাচা বন্দুকযুদ্ধে নিহত

কথিত বন্দুকযুদ্ধে চট্টগ্রামে একাধিক মামলার আসামির মৃত্যু হয়েছে। মহানগরীর ডবলমুরিং থানার ঝর্নাপাড়া এলাকায় ভাইয়ের বউয়ের সঙ্গে বিতণ্ডার পর তিন বছর বয়সী ভাতিজা মেহেরাবকে গলা কেটে হত্যা করেন চাচা জসীম উদ্দিন রাজু (৩২)। মঙ্গলবার রাতের এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর বুধবার ভোররাতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি রাজু নিহত হন। কথিত এই বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার ও ওসিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহত জসীম উদ্দিন রাজুর বিরুদ্ধে পুলিশ সদস্য হত্যাসহ ১৪টি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ নিজের ভাতিজাকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগে থানায় মামলা দায়েরের রাতেই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজুর জীবন শেষ হয়। ‘বন্দুকযুদ্ধের’ স্থান থেকে একটি দেশি অস্ত্র, এক রাউন্ড কার্তুজ, চারটি খোসা, একটি ছোরা এবং ৮৭৫টি ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ। ডবলমুরিং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহির হোসেন জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাজীপাড়ার মৃত বশির উল্লাহর ছেলে রাজু তাঁর ছোট ভাই রাসেদের স্ত্রী নিলু আক্তারের সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়ান। এর জের ধরে নিলুর তিন বছরের ছেলে মেহেরাবকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যান রাজু। এই ঘটনার পরের দিন নিলু আক্তার বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। পরিদর্শক জহির হোসেন বলেন, ‘এই রাজুর বিরুদ্ধে ২০১৪ সালে আগ্রাবাদ শিশু পার্ক এলাকায় পুলিশ সদস্য ফরিদ উদ্দিনকে হত্যার অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া হাজীপাড়ার খোরশেদ হত্যা মামলারও আসামি রাজু। তাঁর বিরুদ্ধে মাদক ও ছিনতাইসহ ১৪টি মামলা রয়েছে। এর আগে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন তিনি। জামিনে এসে বারবার অপরাধে জড়িয়ে পড়তেন রাজু।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা