kalerkantho

সোমবার । ২৯ আষাঢ় ১৪২৭। ১৩ জুলাই ২০২০। ২১ জিলকদ ১৪৪১

করোনা উপসর্গ নিয়ে সাংবাদিক মিজানুর রহমান খানের মৃত্যু

► এ পর্যন্ত করোনায় একজন এবং উপসর্গ নিয়ে তিন সাংবাদিক প্রাণ হারালেন
► মোট আক্রান্ত দেড় শ সংবাদকর্মী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা উপসর্গ নিয়ে সাংবাদিক মিজানুর রহমান খানের মৃত্যু

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন আরেক সাংবাদিক। তাঁর নাম এম মিজানুর রহমান খান। তিনি দৈনিক বাংলাদেশের খবরের ফটো সাংবাদিক এবং বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। গতকাল বুধবার ডিআরইউ নেতারা তাঁকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বাদ আসর রাজধানীর ঝিগাতলা নতুন রাস্তা মসজিদ প্রাঙ্গণে মিজানুর রহমানের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মারকাজুল ইসলামের কর্মীদের তত্ত্বাবধানে রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়েছে। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন।

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস উপসর্গ নিয়ে তিনজন সাংবাদিক এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে একজন সাংবাদিক প্রাণ হারালেন। করোনাভাইরাসে কমপক্ষে দেড় শ সংবাদকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশের খবরের জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক এম জহিরুল ইসলাম জানান, মিজানুর রহমান খান অসুস্থ ছিলেন। তিনি গতকাল সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) গিয়েছিলেন করোনা পরীক্ষা করাতে। সেখানে অপেক্ষার একপর্যায়ে তিনি পড়ে যান। দীর্ঘক্ষণ সেখানেই পড়েছিলেন। পরে ডিআরইউ নেতারা তাঁকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

সেখানে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

করোনাযুদ্ধে প্রাণ হারানো দেশের প্রথম সাংবাদিক হলেন সময়ের আলো পত্রিকার নগর সম্পাদক ও প্রধান প্রতিবেদক হুমায়ুন কবীর খোকন। তিনি গত ২৮ এপ্রিল রাতে মারা যান। করোনা আক্রান্ত হয়ে তাঁর স্ত্রী ও সন্তান এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ৬ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ হারান একই পত্রিকার জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক মাহমুদুল হাকিম অপু। ৭ এপ্রিল করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয় ভোরের কাগজের ক্রাইম বিভাগের সিনিয়র রিপোর্টার আসলাম রহমানের। শেষ দুজনের মৃত্যুর পর করোনা সংক্রমণের পরীক্ষা করা হয়নি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা