kalerkantho

শুক্রবার । ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৫ জুন ২০২০। ১২ শাওয়াল ১৪৪১

‘আগে মানুষ বাঁচুক, পরে চিকিৎসা হবে’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১০ মিনিটে



‘আগে মানুষ বাঁচুক, পরে চিকিৎসা হবে’

নাটোরের বাগাতিপাড়ার পৌর এলাকা রেলগেটের বাসিন্দা শিরিন আক্তার আট বছর ধরে বিভিন্ন অসুখে ভুগছেন। অনেক কষ্টে আয় করে তা থেকে জমিয়ে ভারতে চিকিৎসা নেন তিনি। এবারও তিনি টাকা জমিয়েছিলেন ভারতে গিয়ে চিকিৎসার জন্য। এরই মধ্যে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। ফলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে মানুষকে ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আর করোনাভাইরাস মোকাবেলার ‘যুদ্ধে’ ঘরে থাকতে গিয়ে নিম্ন আয়ের শ্রমজীবীরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। তাদের দুর্দশা আলোড়িত করে শিরিন ও তাঁর স্বামীকে। তাই চিকিৎসার জন্য জমানো সব টাকা দিয়ে এসব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাঁরা। তাঁরা বাজার থেকে পাঁচ কেজি করে চাল ছাড়াও আলু, সবজি, তেল, সাবান কিনে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দরিদ্র পরিবারের হাতে তুলে দিচ্ছেন।

শিরিন আক্তার আনসার ভিডিপির পৌর ওয়ার্ড লিডার। তাঁর স্বামী জিয়াউর রহমান পেশায় ঠিকাদারের সহযোগী। তাঁরা জানান, তাঁদের নিজেদের জমি নেই। তাই রেলের জমিতে ঘর নির্মাণ করে থাকছেন। তাঁদের দুই সন্তান পড়াশোনা করছে। সহায়তার বিষয়ে শিরিন আক্তার বলেন, ‘মানবতা সবার আগে, এরপর অন্য কিছু। আগে মানুষ বাঁচুক, পরে চিকিৎসা হবে। নিজেরা পেট পুরে খেয়ে শান্তিতে থাকব আর অসহায় মানুষেরা না খেয়ে কষ্ট করবে, তা হয় না।’

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ঘরবন্দি ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষজনকে সরকার খাদ্যসহ অন্যান্য সহায়তা তো দিচ্ছেই, শিরিনদের মতো বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনও তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে।

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় মঙ্গলবার রাতে এক হাজার ৭০টি দরিদ্র পরিবারকে খাদ্যদ্রব্য ভ্যানযোগে পৌঁছে দিয়েছেন পৌরসভার মেয়র গোলাম হাসনাইন রাসেল। ভাঙ্গুড়ার রকিবুল ইসলাম বাবুলসহ কয়েকজন সংস্কৃতিকর্মী মেয়রকে এই খাদ্যদ্রব্য দিতে আর্থিক সহযোগিতা করেন। রাজশাহী মহানগরীর নিম্ন আয়ের মানুষের বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিলেন সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। গতকাল হেতেমখাঁ হরিজনপল্লির বাসিন্দা ও আইডি বাগানপাড়ার হিন্দুদের এক হাজার পরিবারের প্রত্যেককে পাঁচ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, দুই কেজি আলু ও একটি সাবান দেন তিনি।

মাগুরা পৌরসভার প্রায় ১০ হাজার কর্মহীন দরিদ্র পরিবারে খ্যদ্যসামগ্রী বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছেন মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) সাইফুজ্জামান শিখর। গতকাল তিনি বেশ কিছু পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন। পরে এক হাজার ৩০০টি পরিবারে এমপির খাদ্য পৌঁছে দেন স্বেচ্ছসেবকরা। ঠাকুরগাঁও জেলা মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সংগঠনের জেলা কার্যালয়ে গতকাল এক হাজার শ্রমিকের মাঝে চাল, ডাল, আলু, সাবান ইত্যাদি বিতরণ করা হয়েছে।

কুড়িগ্রামে জেলা প্রশাসন ও সাংবাদিকদের সঙ্গে গতকাল সকালে সার্কিটহাউস হলরুমে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাদের এক মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে সেনাদলটি কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল ও শহরের ত্রিমোহনী এলাকায় শতাধিক দুস্থ ব্যক্তির মাঝে চাল, ডাল, আলু, লবণ ও তেল বিতরণ করে। সেনাদলের নেতৃত্বে ছিলেন রংপুর এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো. নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সেনাবাহিনী বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্য মাঠপর্যায়ে কাজ করছে। তারা করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নিয়োজিত হয়েছে। আমাদের প্রথম কাজ ত্রাণ বিতরণে স্বচ্ছতা আনা, করোনাভাইরাসজনিত সাধারণ রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা এবং আতঙ্ক নয়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও বাড়িতে অবস্থান করা এবং সচেতনতামূলক কার্যক্রম বেগবান করা।’

নাটোর জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে গতকাল করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত ৯০০ দরিদ্র ও কর্মহীনের মাঝে খাদ্য ও সাবান বিতরণ করা হয়েছে। এদিকে গতকাল জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ সদর উপজেলার মাহেশা আশ্রয়ণ প্রকল্প ও পার হালসার বাড়ি বাড়ি গিয়ে ১৭০টি পরিবারের হাতে খাদ্য ও অন্য সামগ্রী তুলে দেন।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের আনন্দবাগ গ্রামের ৩২টি পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, আলুসহ নিত্যপণ্য বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল আনন্দবাগ গ্রামবাসীর আয়োজনে এসব পণ্য বিতরণ করা হয়।

রাজশাহীর বাঘায় নিম্ন আয়ের মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাস্ক বিতরণের পর গতকাল ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল ও দুই কেজি আলুর প্যাকেট দিয়েছেন স্থানীয় এমপি ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। এদিকে বাঘার আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদুজ্জামান শাহীদ নিজস্ব অর্থায়নে গতকাল শতাধিক অসহায় ও দুস্থ ভ্যানচালককে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন। অন্যদিকে বাঘা থানার সব কর্মকর্তার কাছ থেকে সহযোগিতা নিয়ে অসহায়দের হাতে চাল, ডাল তুলে দিয়েছেন থানার ওসি নজরুল ইসলাম। আর বাঘায় অগ্নিদগ্ধে নিহত তিনজনের পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সহায়তা করেছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সুলতান।

নওগাঁ জেলা পুলিশের উদ্যোগে গতকাল কর্মহীন অসহায় এক হাজার ২৫০ জন মানুষের মাঝে চাল, আলু, ডাল, তেল ও সাবান বিতরণ করা হয়েছে। একই দিন জেলার রানীনগরে থানা পুলিশের উদ্যোগে (পুলিশ সদস্যদের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে) ১০০ কর্মহীন গরিব মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। আর ধামইরহাট থানা পুলিশ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও কর্মহীন দিনমজুর ১০০ পরিবারকে বাড়িতে থাকার নিশ্চয়তা হিসেবে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে।

নিম্নবিত্ত রিকশা-ভ্যানচালকদের খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার পুলিশ। গতকাল রিকশা-ভ্যানচালকদের মধ্যে চাল, ডাল, আলু, তেল, লবণ, সাবান ও মাস্ক বিতরণ করেন হাইওয়ে থানার বগুড়া রিজিয়নের পুলিশ সুপার শহিদ উল্লাহ। ঘরবন্দি দুস্থ ও শ্রমজীবী মানুষের জন্য ত্রাণ পাঠিয়েছেন পঞ্চগড়-১ আসনের এমপি মজাহারুল হক প্রধান। গতকাল বিভিন্ন এলাকায় প্রথম দফায় চারটি পিকআপে চাল, ডাল, আলু, লবণ, তেল ও সাবানের এক হাজার ২০০ প্যাকেট পাঠানো হয়।

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলায় চার যুবক নিজ উদ্যোগে কর্মহীন মানুষের বাড়ি বাড়ি (২০০ পরিবার) গিয়ে খাদ্যসামগ্রী (চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ), সাবান ও মাস্ক বিতরণ করেছেন। তাঁরা হলেন স্থানীয় মজিবর হোসেন, মেম্বার শাহীন, সজিব মিয়া ও শাহীন ভুইয়া।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ঘরে থাকা ৯০০ দরিদ্র মানুষের হাতে গোপালগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের পক্ষে খাদ্য সহায়তা তুলে দিলেন গোপালগঞ্জের দুই নেতা। জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা শেখ সাহাবুদ্দিন হিটু ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এসব খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। গোপালগঞ্জে গতকাল সাংবাদিক ও চিকিৎসকদের ৫০টি পিপিই ও হ্যান্ড গ্লাভস দিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল আক্তার বাবলা। অন্যদিকে কোটালীপাড়ার ইউএনও এস এম মাহফুজুর রহমান ৫০০ ভ্যানচালককে সরকারি খাদ্য সহায়তা দেন।

প্রায় ৪০০ মানুষের পাশে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে সহায়তার হাত বাড়ালেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য মো. আব্দুর রহমান। গতকাল তাঁর পক্ষে ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মুরাদুজ্জামান ও পৌরসভার মেয়র মোরশেদ রহমান লিমন মধুখালীর বেলেশ্বর সরকাইর প্রাথমিক বিদ্যালয় সাঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চাল, ডাল, আটা, আলু, মাস্ক বিতরণ করেন।

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার আটটি ইউনিয়নের কর্মহীন শ্রমজীবী ৮০০ পরিবারের মাঝে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের সিইও অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আতাউর রহমান প্রধানের ব্যক্তিগত উদ্যোগে গতকাল খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। একই জেলার বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আলোকিত বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গত দুই দিনে পাটগ্রাম ও হাতীবান্ধা উপজেলায় ৩০০ কর্মহীন ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার রাতে নীলফামারীর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমানের নেতৃত্বে জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকার দিনমজুর, প্রতিবন্ধীসহ নিম্ন আয়ের ২০০ পরিবারের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয় খাদ্য সহায়তা। জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে অসহায় ও দুস্থ ৬০০ পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাল ও দুই কেজি করে আলু বিতরণ করা হয়েছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় আলমডাঙ্গায় কর্মরত ৩০ চিকিৎসক ও পাঁচ পুলিশকে পিপিই পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান মীর শহিদুল ইসলাম। গতকাল আলমডাঙ্গার ইউএনও লিটন আলী এসব হস্তান্তর করেন।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে কালের কণ্ঠ’র পাঠক সংগঠন শুভসংঘ রাজবাড়ী জেলা শাখা। তারা সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি কাজী কেরামত আলীর মেয়ে কানিজ ফাতেমা চৈতির সহযোগিতায় গতকাল জেলা শহরের রেলগেট চত্বরে রিকশাচালকদের মাঝে গ্লাভস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে। উপস্থিত ছিলেন শুভসংঘ রাজবাড়ী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ মণ্ডলসহ অন্য নেতারা।

খাগড়াছড়ির গরিব-অসহায় মানুষের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। কয়েক দিনে তাঁরা ২০ লাখ টাকার বেশি দিয়েছেন। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও শরণার্থীবিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি জানান, প্রাথমিকভাবে ২০ লাখ টাকায় গরিব প্রতিটি পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে। এ ছাড়া জেলা পরিষদের উদ্যোগে ৫০ লাখ টাকায় ১০ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে। এর বাইরে সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সমন্বয়ের মাধ্যমে খাদ্য সাহায্য দেওয়া হচ্ছে। এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গতকাল থেকে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ শুরু হয়েছে।

বরগুনার বামনা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতারা গতকাল শহরে কর্মহীন, রিকশা শ্রমিক, দিনমজুরসহ খেটে খাওয়া মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের লংগাইর ইউপির চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আমিন বিপ্লব কয়েক দিনে নিজ তহবিল থেকে ইউনিয়নের আটটি গ্রামের ৭০০ কর্মহীন পরিবারকে চাল, আলু, ডাল, পেঁয়াজ, সাবান ও প্যারাসিটামল ট্যাবলেট দেন।

ঝালকাঠিতে গতকাল জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও পৌরসভার কাউন্সিলর রেজাউল করিম জাকিরের উদ্যোগে কর্মহীন দরিদ্র ৭০০ মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী এসব খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন। এর আগে মঙ্গলবার রাতে জেলা প্রশাসক বেদে সম্প্রদায় ও রিকশাচালকদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হন। তিনি ৭০টি পরিবারের হাতে চাল, ডাল ও আলুর একটি করে প্যাকেট তুলে দেন।

গতকাল প্রয়াত বাবা তোফাজ্জেল হোসেন সরদারের জন্য দোয়া চেয়ে ছেলে মাদারীপুরের কালকিনি পৌর এলাকার চরবিভাগদী গ্রামের ব্যবসায়ী মো, মোরশালিন সরদার নিজ এলাকার ৬০ জন দুস্থের মাঝে চাল, ডাল, আলুসহ বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। মঙ্গলবার অসহায় বেদে সম্প্রদায়ের ১১৯টি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন নোয়াখালী পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন।

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর ও নিকলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ও নার্সদের ব্যক্তিগত সুরক্ষায় গতকাল পিপিই বিতরণ করেছেন কিশোরগঞ্জ-৫ আসনের এমপি মো. আফজাল হোসেন। পিরোজপুরের ইন্দুরকানী?তে গতকাল কর্মহীন অসহায় মানুষ?কে খাদ্য ও সুরক্ষাসামগ্রী দিয়েছে ইন্দুরকানী ডে?ভেলপ?মেন্ট অর্গানাই?জেশন (আই?ডিও)। হবিগঞ্জে পাঁচ শতাধিক অসহায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ। গতকাল জেলা আওয়ামী লীগের  কার্যালয়ের সামনে পাঁচ শতাধিক কর্মহীনের হাতে তুলে দেওয়া হয় চাল, ডাল, ভোজ্য তেল ও সাবান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও হবিগঞ্জ-৩ আসনের এমপি মো. আবু জাহির।

এ ছাড়া নওগাঁ, ঢাকার ধামরাই, পাবনার চাটমোহর, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া, নেত্রকোনার দুর্গাপুর, মুন্সীগঞ্জ, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, মাদারীপুরের শিবচর, দিনাজপুরের হিলি, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট, কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়াসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় সরকারি প্রশাসন এবং ব্যক্তি ও সংগঠনের উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য ও অন্যান্য সহায়তা বিতরণ করা হয়েছে।

[প্রতিবেদনটি তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিরা]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা