kalerkantho

সোমবার  । ১৬ চৈত্র ১৪২৬। ৩০ মার্চ ২০২০। ৪ শাবান ১৪৪১

প্রাণের মেলা

হাতে হাতে বইয়ের ব্যাগ

নওশাদ জামিল   

২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



হাতে হাতে বইয়ের ব্যাগ

শাহবাগ মোড় থেকে সোজা রাস্তাটি চলে গেছে টিএসসি হয়ে দোয়েল চত্বরে। মেট্রো রেল নির্মাণ কাজের কারণে রাস্তাটি এখন সরু হয়ে অর্ধেক। গতকাল শুক্রবার এ রাস্তায় পা ফেলার উপায় ছিল না।  রাস্তাজুড়ে গায়ে গায়ে ঘেঁষাঘেঁষি মানুষের ভিড়। উৎসবমুখর মানুষ এগিয়ে যাচ্ছে বইমেলা প্রাঙ্গণে। বইমেলার ভেতরে গিয়েও দেখা গেল মানুষ আর মানুষ। তবে গতকাল এই বিপুল মানুষের বেশির ভাগই ছিল ক্রেতা। বেশির ভাগ মানুষের হাতে হাতে দেখা গেছে সদ্য কেনা বইয়ের ব্যাগ। প্রকাশকরা আনন্দচিত্তে জানালেন, দারুণ বিক্রি হয়েছে।

আজ শনিবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার সমাপনী দিন। মেলা চলবে সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে সমাপনী অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেবেন একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

গ্রন্থমেলার প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন গ্রন্থমেলার সদস্যসচিব ড. জালাল আহমেদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সংস্কৃতিসচিব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। 

গতকাল সকালে ছোট পাঠকদের পদচারণে রঙিন হয়ে ওঠে শিশু প্রহর। দুপুর গড়িয়ে বিকেল নামতেই শুরু হয় সব শ্রেণির পাঠকের আগমন। মাওলা ব্রাদার্সের সামনে কর্মজীবী নারী তানিয়া রহমানের সঙ্গে কথা হয়। কী বই কিনলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমি রাজনীতিবিষয়ক বই পড়তে পছন্দ করি। তাই এই প্রকাশনীর সদ্যঃপ্রকাশিত ‘রেকর্ড অব প্রসিডিংস : দ্য আগরতলা কন্সপিরেসি কেস’ চার খণ্ডের গ্রন্থটির প্রথম দুই খণ্ড কিনলাম। শেখ হাসিনা সংকলিত বইটিতে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার বিচারের পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।”

গতকাল বিকেলে মেলায় এসেছিলেন সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। এই কথাশিল্পী বলেন, ‘মেলায় আজ দ্বিতীয়বারের মতো আসলাম। যেটুকু দেখেছি, তাতে ভালোই লাগছে।’ মানহীন প্রকাশনা সংস্থার আধিক্য নিয়ে তিনি বলেন, ‘এ ধরনের প্রকাশনা সংস্থাকে মেলা থেকে বাদ দিতে হবে। রাজনৈতিক বিবেচনায় স্টল বরাদ্দ না দেওয়ার বিষয়ে বাংলা একাডেমিকে কঠোর হতে হবে। মেলা যদি ভালো প্রকাশকদের নিয়ে হয়, তাহলে পরিবেশ এবং বই বিক্রি দুটোই ভালো হবে।’

গতকাল মেলায় আরো এসেছিলেন কথাশিল্পী ইমদাদুল হক মিলন, আনিসুল হক, মোস্তফা কামালসহ অনেক  নবীন-প্রবীণ লেখক। বিভিন্ন প্যাভিলিয়ন ও স্টলে তাঁরা নিজের লেখা বইয়ে অটোগ্রাফ দিয়েছেন ভক্তদের।

গ্রন্থমেলায় আসা চারটি বইয়ের তথ্য-পরিচিতি দেওয়া হলো।

মধ্যাহ্ন, অপরাহ্ন! : বিশিষ্ট নাট্যজন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকেরের আত্মকথা। নাটক রূপান্তর, নির্দেশনা, মঞ্চায়ন, সাংস্কৃতিক আন্দোলনসহ নানা বিষয় নিয়ে লিখেছেন তাঁর এই জীবনকথা। দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা ও প্রাজ্ঞতার কথা বলেছেন সহজ ও প্রাণবন্ত ভাষায়। বইটি প্রকাশ করেছে জার্নিম্যান বুকস। দাম ৪০০ টাকা।

মানবতার আমন্ত্রণে তুরস্ক : শিশুসাহিত্যিক ও বিশিষ্ট লেখক শাহরিয়ার কবিরের ভ্রমণগ্রন্থ। সমৃদ্ধ সভ্যতার অধিকারী তুরস্ক। দেশটিতে ভ্রমণকথার পাশাপাশি দেশটির জাতির ইতিহাস, ঐতিহ্য, মানবতাবাদ, সুফিবাদসহ আধুনিক স্থাপত্যকলার নানা বিষয় নিয়ে রচিত বইটি। বইটির প্রকাশক অনন্যা। দাম ২০০ টাকা।

১৯৭১ গণনির্যাতন-গণহত্যা : অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই বইটিতে উঠে এসেছে প্রান্তিক মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধের সময় যে গণহত্যা ও গণনির্যাতন সংগঠিত করেছিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসররা, তার পুঙ্খানুপুঙ্খ ইতিহাস সরেজমিনে উঠে এসেছে এ বইটিতে। বইটির সম্পাদনা করেছেন বিশিষ্ট গবেষক ও অনুবাদক আফসান চৌধুরী। প্রকাশ করেছে কথাপ্রকাশ। দাম ৪০০ টাকা।

আলথুসার : কবি ও কথাসাহিত্যিক মাসুর আরেফিনের উপন্যাস। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডল ঘিরে আবর্তিত হয়েছে এ উপন্যাসের গল্প ও পটভূমি। লেখক তাঁর জাদুবিস্তারী গল্পভঙ্গিমায় পাঠককে টেনে নিয়ে যান জীবন ও জগতের এক দার্শনিক উপত্যকায়। সেখানে মিলেমিশে একাকার রাজনীতি, দর্শন ও জটিলতর জীবনের গূঢ় আখ্যান। বইটির প্রকাশক প্রথমা। 

নতুন বই : বাংলা একাডেমির দেওয়া তথ্যানুযায়ী, গতকাল মেলার ২৭তম দিন পর্যন্ত মোট প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা চার হাজার ৭৩৪। গতকাল আসা নতুন বইয়ের মধ্যে রয়েছে বাংলা একাডেমি প্রকাশিত আবুল কাসেমের বঙ্গবন্ধুবিষয়ক বই ‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক উন্নয়ন দর্শন জাতীয়করণনীতি এবং প্রথম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা’। ভাষাচিত্র প্রকাশ করেছে মাসুদ সেজানের কবিতার বই ‘দাঁড়াও সভ্যতা’। প্রিয়মুখ প্রকাশ করেছে ফরিদ হাসানের কাব্যগ্রন্থ ‘নীলাভ নিগড়’, দ্য প্রকাশন এনেছে মনি হায়দারের উপন্যাস ‘চলুন, মানুষের কারখানায়’। পুথিলিয়ন এনেছে বিপ্রদাশ বড়ুয়ার শিশুতোষ বই ‘জাদুর বাঁশি’। হরিৎপত্র এনেছে সেলিনা হোসেনের গল্পগ্রন্থ ‘খোল করতাল’। চন্দ্রবিন্দু এনেছে মাহবুব ময়ূখ রিশাদের উপন্যাস ‘আরিমাতানো’, হরিশংকর জলদাসের গল্পগ্রন্থ ‘আহব ইদানীং’ ইত্যাদি।

মেলামঞ্চের আয়োজন : গতকাল বিকেলে মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় আবুল কাসেম রচিত ‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক উন্নয়ন দর্শন : জাতীয়করণনীতি এবং প্রথম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ পাঠ করেন অসীম সাহা। আলোচনায় অংশ নেন কাজী রোজী, এম এম আকাশ ও নাসিমা আনিস। লেখকের বক্তব্য দেন আবুল কাসেম। সভাপতিত্ব করেন আতিউর রহমান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা