kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাপনা আরো উন্নত করতে চাই

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্থানীয় সরকার ব্যবস্থাপনা আরো উন্নত করতে চাই

গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত মানুষের জীবনমান উন্নত করতে কাজ করছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এর জন্য সরকার ঘোষিত ‘ভিশন ২০৪১’-কে গুরুত্ব দিয়ে দেশের তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত বহুমুখী কর্মকাণ্ড হাতে নেওয়া হয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে সম্প্রতি কালের কণ্ঠকে একান্ত সাক্ষাৎকার দিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এমপি। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন মোশতাক আহমদ কালের কণ্ঠ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘ভিশন ২০৪১’ বাস্তবায়নে যে কর্মযজ্ঞ চলছে, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী হিসেবে আপনি এটিকে কিভাবে দেখছেন?

তাজুল ইসলাম : বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেশজুড়ে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত বহুমুখী কর্মকাণ্ড হাতে নেওয়া হয়েছে আমার মন্ত্রণালয় থেকে। এর মধ্যে একটি বিষয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, যোগাযোগব্যবস্থা উন্নত করা। সামাজিক নিরাপত্তা ও দারিদ্র্য দূরীকরণে নানা প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে মূল চালিকাশক্তি কৃষি খাত। এই খাতকে লাভজনক করতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

কালের কণ্ঠ : স্যানিটেশনে বাংলাদেশ ৯৯ শতাংশ সফলতা অর্জন করেছে, এটি কিভাবে সম্ভব হলো?

তাজুল ইসলাম : এটি প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার ছিল। সে অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে, আমরা সফলতা পেয়েছি। এখন দেশে স্যানিটেশনের বাইরে কেউ নেই বললেই চলে।

কালের কণ্ঠ : প্রথমবারের মতো মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়ে আপনার অনুভূতি কেমন?

তাজুল ইসলাম :  আমি এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়ে অনেক উৎসাহ বোধ করছি এ কারণে যে আমি অনেক বেশি মানুষের সেবা করার সুযোগ পাচ্ছি। গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত মানুষের জীবনমান উন্নত করতে প্রধানমন্ত্রীর যে পরিকল্পনা, সেই পরিকল্পনা পূরণে আমি কাজ করে যাচ্ছি।

কালের কণ্ঠ : জেলা পরিষদের তো অনেক সম্পদ আছে। এই সম্পদ নিয়ে আপনার কোনো পরিকল্পনা আছে কি?

তাজুল ইসলাম : জেলা পরিষদের সম্পদ জেলা পরিষদকেই সংরক্ষণ করতে হবে। ভৌগোলিক অবস্থা বিবেচনা করে এ সম্পদের সঠিক ব্যবহারের উদ্যোগ নিতে হবে। সম্প্রতি আমরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের সঙ্গে বৈঠক করে এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছি।

কালের কণ্ঠ : ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ড ও গ্রামের উন্নয়নে আপনার কোনো পরিকল্পনা আছে কি?

তাজুল ইসলাম : আমি মনে করি, গ্রামের উন্নয়নে প্রতিটি ওয়ার্ডের  মেম্বারদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন হওয়া দরকার। মেম্বাররা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। জনগণের সবচেয়ে কাছাকাছি যেতে পারেন ওয়ার্ড মেম্বাররা। মেম্বাররা যদি জনগণের কল্যাণে কাজ করতে পারেন, তাহলে আমরা বড় ধরনের সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হব।

কালের কণ্ঠ : বিশুদ্ধ পানির সংকট মোকাবেলায় আপনার পরিকল্পনা কী?

তাজুল ইসলাম : আমরা এটি নিয়ে কাজ করছি। বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য সম্প্রতি প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাস করা হয়েছে। এর জন্য পুকুর তৈরি করা হচ্ছে, টিউবওয়েল দেওয়া হচ্ছে, সার্ফেস ওয়াটার প্লান্ট তৈরি করা হচ্ছে।

কালের কণ্ঠ : আপনাকে ধন্যবাদ।

তাজুল ইসলাম : কালের কণ্ঠকেও ধন্যবাদ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা